মুরাদনগরে নিহত স্কুলছাত্রী আকলিমার পরিবারের পাশে দাড়ালেন উপজেলা প্রশাসন

মো. নাজিম উদ্দিনঃ ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের গোমতা এলাকায় ট্রাক চাপাঁয় নিহত স্কুল ছাত্রী আকলিমার পরিবারের পাশে দাড়ালেন মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার দুপুরে উপজেলার বাবুটিপাড়া গ্রামের নিহত স্কুল ছাত্রীর বাড়ীতে যান উপজেলা নিবার্হী অফিসার মিতু মরিয়ম। মহিলা ইউএনও কে দেখে নিহতের মা রফিয়া বেগম তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। ইউএনও মিতু মরিয়ম অশ্রুশিক্ত ও আপ্লুত হয়ে পড়েন এবং নিহতের পরিবারের সদস্যদের শান্তনা প্রদান করেন। এসময় একটি হৃদয় বিধারক পরিবেশের অবতারনা ঘটে। কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর’র নির্দেশে উপজেলা পরিষদের তহবিল থেকে নিহতের মা রফিয়া বেগমের হাতে নগদ ১৫হাজার টাকা তুলে দেন ইউএনও।

এরপর তিনি আহত ছাত্র-ছাত্রীদের দেখতে যান এবং নিহত আকলিমার কবর জিয়ারত করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যামিক শিক্ষা অফিসার সফিউল আলম তালুকদার, গোমতা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুন্সী সাইফ আহাম্মেদ, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মোহাম্মদ আলী ব্যাপারী, রমিজ উদ্দিন, নুরুল আহাম্মেদ, মরিয়ম বেগম, বাবুটিপাড়া ইউপির সদস্য জসিম উদ্দিন, রফিকুল ইসলাম খন্দকার প্রমুখ।

গোমতা ইছহাকিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, নিহত স্কুল ছাত্রী আকলিমার পরিবারকে ম্যানেজিং কমিটির পক্ষ থেকে নগদ ৫হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন আকলিমার পরিবারটি খুবই গরীব ও অসহায় ভাবে জীবনযাপন করে, সমাজের বিত্তবানরা যদি একটু সহায়তা করতো তাহলে পরিবারটি কিছুটা সচ্ছল হতো।

উল্লেখ্য: গত মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের গোমতা এলাকায় ট্রাক চাপায় বাবুটিপাড়া গ্রামের আবদি মিয়ার মেয়ে ও গোমতা ইসহাকিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী আকলিমা আক্তার(১৫) নিহত এবং আরো দুই শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ