যা খেয়ে ক্ষুদে ফুটবলাররা বেঁচে ছিল নয় দিন

ডেস্ক রিপোর্টঃ মঙ্গলবার সর্বশেষ খবর অনুযায়ী কোচ আর একটি মাত্র ছেলে গুহার ভিতরে রয়েছে। এর আগে, মঙ্গলবার (১০ জুন) সকালের দিকে তৃতীয় দিনের মতো উদ্ধার অভিযানে নামে ডুবুরিরা।

ওই ফুটবল দলের সদস্য এবং তাদের কোচের কিছু তথ্য বেরিয়ে এসেছে। ক্যাপ্টেন ডুগানপেট প্রমটেপ- বয়স ১৩ বছর, তিনি দলের অত্যন্ত সম্মানিত সদস্য যিনি দলকে উজ্জীবিত রাখতে কাজ করেন। তিনি থাইল্যান্ডের বেশ কয়েকটি পেশাদার ক্লাব থেকে স্কাউটিংয়ের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।

আদুল স্যাম-অন- ১৪ বছর বয়স, মিয়ানমার বংশোদ্ভূত, কয়েকটি ভাষায় কথা বলতে পারেন এবং দলের একমাত্র সদস্য যিনি ব্রিটিশ ডুরিদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছেন। যারা সর্বপ্রথম তাদের সন্ধান পায়।

পিরাপাত সোমপিয়াংজাই- বয়স ১৭ বছর, যেদিন তারা গুহায় আটকে পড়ে অর্থাৎ ২৩ জুন তার জন্মদিন ছিল।

একাপোল চান্টাওং- বয়স ২৫ বছর, দলের সহযোগী কোচ, উদ্ধারকারীদের মতে তিনি সবচেয়ে দুর্বল অবস্থায় আছেন।

যা খেয়ে বেঁচে ছিল ৯দিন: ২৩ জুন নাইটের জন্মদিন ছিল। সেদিনই নিখোঁজ হয় সে। তার বাবা-মা এখনো সেই জন্মদিনের পার্টি আয়োজনের অপেক্ষায় আছেন।

স্থানীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুসারে, নাইটের জন্মদিন উদযাপনের উদ্দেশ্যেই ওইদিন গুহায় ঢুকেছিল দলটি। সঙ্গে করে এজন্য নানা রকম স্ন্যাকসও নিয়ে গিয়েছিল তারা। তাদের সাথে নেয়া এসব খাবার অল্প অল্প করেই এই কয়দিন বেচেঁ ছিল ওরা। সবচেয়ে আশ্চার্যের যে বিষয়টি সেটি হল, কোচঁ সবার থেকে কম খেতেন এবং তিনি অন্যদের তার খাবার খেতে দিতেন। আর এ কারনেই তিনি ছিলে সবার চেয়ে দুর্বল।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ