রৌদ্রজল গুণীজন সম্মাননা প্রদান

বিশেষ প্রতিবেদনঃ দেশমাতৃকায় যাঁদের অবদান আকাশছোঁয়া, কিন্তু প্রাপ্তি খুবই সামান্য। এসব মহান মানুষদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ও গুণীজন সম্মাননা প্রদান করে রৌদ্রজল। নজরুল ইনস্টিটিউট কেন্দ্র, কুমিল্লায় সান্ধ্যকালীন একটি অনুষ্ঠানে আলোচনা, গুণীজন সম্মাননা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাজপ্রমঞ্চ প্রকাশন, এতে সহযোগী সংগঠন হিসেবে ছিল জাগ্রত জনতার মঞ্চ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য’র মাধ্যমে রৌদ্রজল সহযোগী সম্পাদক মাইজুদ্দিনআহমেদ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বীরমুক্তিযোদ্ধা জহিরুল হক দুলাল, নজরুল গবেষক ড. আলী হোসেন চৌধুরী, কুমিল্ল­া মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ডাঃ মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ, নজরুল ইনস্টিটিউট এর দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আল আমীন। আলোচনা অনুষ্ঠানের সমাপ্ত ঘোষনা করেন রৌদ্রজল সম্পাদক ও সংগঠক নিজাম উদ্দিন রাব্বী। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে গুণীজন সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়।

সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন ভাষা সৈনিক- আলী তাহের মজুমদার, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা- মমিনুল হক ভূঞা, শিক্ষাবিদ- আমীর আলী চৌধুরী, নৃত্যশিল্পী ও প্রশিক্ষক- তপন দাশ গুপ্ত, শিশু সংগঠক ও সমাজকর্মী- অনিমা মজুমদার, দেশ বরণ্য শিল্পী- কাজী জাকারিয়া, ত্রিপুরার সাংবাদিক ও সমাজকর্মী- অমিত ভৌমিক, ত্রিপুরার বাচিক শিল্পী- শাওলী রায়, বাচিক শিল্পী ও সংগঠক – কাজী মাহতাব সুমন মহোদয়দের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়। সম্মাননা প্রাপ্ত গুণীজনদের প্রতিক্রিয়া শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মাহতাব সুমনের আবৃত্তি পরিবেশনা, দেশবরণ্য শিল্পী কাজী জাকারিয়ার সংগীত পরিবেশনা এবং সর্বশেষ ওপার বাংলার ত্রিপুরার বাচিক শিল্পী শাওলী রায় এর আবৃত্তি পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন রৌদ্রজল সদস্য মাকসুদা আক্তার ময়না। অনুষ্ঠানে সার্বিক সহয়োগীতা করেন রৌদ্রজল সদস্য সুজন আহমেদ, সালাহ উদ্দিন ভূঁইয়া সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।