সদর দক্ষিণের সেই নাদিয়া অপহরণ মামলাটি আবারও মিথ্যা প্রমানিত

সদর দক্ষিণ প্রতিনিধিঃ গ্রামবাসিকে হয়রানির উদ্দেশ্যে গত ১৯.০৯.২০১৭ইং তারিখে সদর দক্ষিণের উত্তর রামপুর গ্রামের নাদিয়া আক্তার নিজে আত্নগোপনে থেকে গ্রামবাসির বিরুদ্ধে যে মামলাটি দায়ের করেছিল সেই মামলাটি গত ১৮.০৪.২০১৮ইং তারিখে বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল,কুমিল্লা এর মাননীয় বিচারক মামলাটি মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে বলে আদেশ দেন।

পি বি আই কর্তৃক দাখিলকৃত চুড়ান্ত রিপোর্ট গৃহিত করে আসামীদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেন এবং বাদিনী কর্তৃক দাখিলকৃত নারাজি দরখাস্ত নামঞ্জুর করেন। নাদিয়া আক্তার এ পর্যন্ত গ্রামবাসির বিরুদ্ধে পর পর ৪ টি মামলা করেন। তার দায়েরকৃত সবগুলো মামালা’ই আদালতে মিথ্যা বলে প্রমানিত হয়। মিথ্যা মামলা দায়েরের কারণে বর্তমানে নাদিয়ার বিরুদ্ধে ২১১ ধারায় কুমিল্লার আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। আসামী হিসেবে সে প্রতিনিয়ত মামলার হাজিরা দিচ্ছে। নাদিয়ার ব্যাপারে গ্রামের সাধারণ মানুষের কাছে জানতে চাইলে গ্রামবাসি এক বাক্যে বলেন নির্লজ্জ এই মহিলা সম্পর্কে আমরা কোন প্রকার মন্তব্য করতে রাজি নই। তবে গ্রামের মানুষের মনে প্রশ্ন একটাই ? নাদিয়া ডাক্তার ও যমুনা টিভিতে সাক্ষাতকারে বলেছেন তাকে জোড়পূর্বক ধর্ষন করা হয়েছে। কিন্তু ডাক্তারের সার্টিফিকেটে বলা হয়েছে জোড়পূর্বক কোন ধর্ষন হয় নাই। তাহলে ৪৮ দিন নাদিয়া কোথায় রাত্রি যাপন করেছে? গ্রামবাসি এই মিথ্যাবাদি নারীর সঠিক বিচার চায়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ