সদর দক্ষিণে রোকেয়া দিবসে পাঁচ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান

সদর দক্ষিণ প্রতিনিধিঃ অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জন, সফল জননী নারী, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবধান ও নির্যাতনের বিভিষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু” এই পাঁচ ক্যাটাগরীতে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে জয়িতা অন্বেষন করা হয়।

পাঁচ জয়িতারা হলেন-অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জনকারী আয়শা আক্তার, সফল জননী নারী বাসন্ত রানী চক্রবর্তী, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী মোসাঃ সালমা আক্তার, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবধান রেখেছেন সুফিয়া বেগম, নির্যাতনের বিভিষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন শিপ্রা দেবনাথ।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে “জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ” কার্যক্রমের আওতায় জয়িতাদের সম্বর্ধনা ও আলোচনা সভায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত জয়িতাদের সম্মাননা হিসেবে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর দক্ষিণ উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার। তিনি বলেন, একজন সংগ্রামী অপ্রতিরোধ্য নারীর প্রতীকী নাম জয়িতা। কেবল নিজের অদম্য ইচ্ছাকে সম্বল আর চরম প্রতিকূলতাকে জয় করে জয়িতারা তৃণমূল থেকে সবার অলক্ষ্যে সমাজে নিজের জন্য জায়গা করে নিয়েছেন। এদেশের সরকার মনে করেন জয়ীতাদের সম্মাননা ও তাদের পাশে দাড়ালে অন্য নারীরা ও অণুপ্রাণিত হয়ে ঘরে ঘরে জয়িতা সৃষ্টি হবে। সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টা ও একাগ্রতায় সফলতার শিখরে পৌছছেন জয়ীতারা। যাদের বাবা ছিলেন সামান্য দিনমজুর,যার ছিল শুধু ভিটেবাড়িটুকু,স্বামীর নির্যাতনের স্বীকার যে সকল নারী অর্থাৎ যারা নিজের চোখে দেখেছেন সমাজের উত্থান পতন তারা সংগ্রাম করে আজ নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন তারাই সমাজের নির্ভীক আলোকবর্তিকা।

অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রূপালী মন্ডলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)ফারহানা জাহান উপমা,অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম পি.পি.এম,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তানজুমা পারভীন লুনা,যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কার্যালয়ের বায়োগ্যাস ইঞ্জিঃ এনাম আহম্মেদ,একাডেমিক সুপারভাইজার সালিমা আক্তার,উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের শাহেদ। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ২৪ জনকে আত্নকর্মসংস্থানের জন্য ক্ষুদ্রঋণ দেয়া হয়।