যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) এক শিক্ষক দেশীয় যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে তৈরী করেছেন ভিন্নরকম গাড়ি। পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. হুমায়ুন কবির শুধুমাত্র সৌরশক্তির ব্যবহারে গাড়িটি চালাতে সফল হয়েছেন। বিশেষ এই গাড়ি সাশ্রয়ী ও জনবান্ধব হবে বলে মনে করা হচ্ছে। গাড়িটি একদিনের সৌরচার্জে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে সক্ষম। সূত্র জানায়, গবেষণার অংশ হিসেবে তৈরী করা গাড়ির সোলার প্যানেল ছাড়া সবকিছুই দেশীয় বাজার থেকে সংগ্রহ করা। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব গবেষণা তহবিল থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট থেকে বরাদ্দ হয়েছে গাড়ি তৈরীর খরচ। সে প্রকল্পের সফল বাস্তবায়ন সৌরশক্তি চালিত গাড়ি। যন্ত্রপাতি নিয়ে যশোরের একটি মোটর ওয়ার্কশপে সৌরশক্তি চালিত গাড়িটি তৈরী করা হয়।

ড. মো. হুমায়ুন কবির বলেন, আমাদের দেশে সৌরশক্তি চালিত গাড়ির অপার সম্ভাবনা রয়েছে। চায়না থেকে আমদানিকৃত ব্যাটারিচালিত থ্রি হুইলার এদেশে বহুল প্রচলিত। যদিও সরকারিভাবে তা অনুমোদিত নয়। নিম্নমানের ঐসব গাড়ি আমদানি করতে প্রতিবছর হাজার হাজার ডলার বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হয়। আর ফুয়েল দিয়ে চলা গাড়ি পুরোটাই আমদানি নিভর্র ও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। বিষয়গুলো চিন্তা করে আমরা সৌরশক্তি চালিত গাড়ি তৈরি করেছি। জানা যায়, নতুন ধরনের এই গাড়ির ব্যাটারিতে সৌরশক্তি জমা হওয়া বৈদ্যুতিক চার্জ দিয়ে গাড়ির মোটর চলবে। দুইজন যাত্রী ও একজন চালকসহ গাড়িটি ৩৩০ কেজি বহন করতে পারবে। একদিনের চার্জে গাড়ি চলবে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত। তবে উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন সৌরকোষ ব্যবহার করে তা দ্বিগুণ বা তিনগুণ বাড়ানো সম্ভব। সৌরশক্তি দিয়ে গাড়ি চালানো নতুন নয়। তবে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার শুরু হয়নি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: