ডেস্ক রিপোর্টঃ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা নির্বহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরুল হাসান এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে, স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্তকারী বখাটে যুবক কে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে ১মাসের সাজা প্রদাণ করা হয়।

জানা যায়, ময়নামতির ঘোষনগর এলাকার বাসিন্দা আলমঙ্গীর হোসেনের স্কুল পড়ুয়া কন্যা মিনা কে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিলো সোলামান নামের বখাটে যুবক। কালাকচুয়া কাজিমুদ্দিন খন্দকার উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী মিনা আক্তার এর মা পূর্বেও এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বলেও জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে নাজিরা বাজার লাকি মার্কেটের সামনের সড়কে পথ রোধ করে অশালীন আচরণ শুরু করে। এসময় ঐ ছাত্রীর শ্লীলতাহনীর চেষ্টা চালায় বখাটে সোলায়মান (২৬)। ফোনে বিষয়টি তার পিতাকে অবহিত করলে পিতা আলমঙ্গির হোসেন ইউএনও কে অবহিত করেন। ইভটিজিংয়ের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক বুড়িচং থানা পুলিশের সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থল আসেন। এসময় সোলায়মান কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে নিজের অপরাধ স্বীকার করে সোলামান। স্কুল ছাত্রী মিনা অভিযোগ করে বলেন প্রায়শই সোলেমান কয়েকজন বখাটে কে নিয়ে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে তাকে প্রেম সহ নানা কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। এছাড়াও কয়েকবার শরীরে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। বিষয়টি এলাকার কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ সহ অভিভাবক কে জানিয়েছেন।

পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করার দায়ে অভিযুক্ত সোলায়মান কে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদাণ করেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরুল হাসান।

বুড়িচং থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অকুল চন্দ্র বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বখাটে সোলায়মান কে একমাসের সাজা প্রদাণ করা হয়েছে। আসামীর পূর্বের বাড়ি ঘোষনগর হলেও সে সদর উপজেলার কালির বাজার কামারবাগ (কমলাপুর) গ্রামের বাসীন্দা এবং সেলিম মিয়ার ছেলে। আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: