২০২১ সালটা আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলের জন্য বেশ ভাল কাটছে। বিশ্বকাপের শুরুতে স্কটল্যান্ডের কাছে হোঁচট খেলেও, ওমানের বিপক্ষে জিতে সুপার টুয়েলভে যাওয়ার সম্ভাবনা উজ্জ্বল করেছে টাইগাররা। বিশ্বকাপের আগেই ঘরের মাঠে মিরপুরে টাইগাররা শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া দল এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবার টি-২০ সিরিজ জিততে সক্ষম হয়। সেই জয়ের ধারা সঙ্গে করেই বাংলাদেশ পা রেখেছিল টি-২০ বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ারে।

তবে শুরুটা একেবারেই ভাল হয়নি। স্কটল্যান্ডের কাছে হারতে হয়েছিল ৬ রানে। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে যখন কার্যত দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল। ওমানের বিপক্ষে ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে তাদের জিততেই হতো পরের রাউন্ডে যেতে। সেই ম্যাচে কার্যত চ্যাম্পিয়ান দলের মত খেলে সব আশঙ্কার মেঘ আপাতত কাটিয়ে দিয়েছে টাইগাররা। ওমানের বিপক্ষে ব্যাট ও বলে দূরন্ত পারফরম্যান্স করে ২৬ রানের বড় জয় তুলে নিতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ।

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪০ রান তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশ তুলতে পেরেছিল মাত্র ২৫, তাও ২ উইকেট হারিয়ে। আর ওমানের বিরুদ্ধে প্রথম ৬ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ করে মাত্র ২৯ রান। পাপুয়া নিউগিনি ম্যাচে পাওয়ার প্লেতে উন্নতি চাইছেন মাহমুদউল্লাহ। পাওয়ার প্লেতে কীভাবে উন্নতি করা যায়, সেই বিষয়ে সতীর্থদের তাগাদা দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশ অধিনায়কের চাওয়া, আমরা কিছু জায়গায় উন্নতি করতে চাই। কিছু ভুল শুধরে নিতে চাই। আমি মনে করি, প্রথম ৬ ওভারের ব্যাটিংয়ে উন্নতি করা দরকার। এই সময়ের বোলিংয়েরও। শেষের দিকে বোলিংটা ভালো হচ্ছে, এটা স্বস্তির।

ওমানের বিপক্ষে জিতেও খুব বেশি উদযাপন করেনি বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ মনে করেন জিতলেও এখনও অনেক জায়গায় উন্নতির প্রয়োজন আছে। তিনি বলেন, আমরা জিতেছি, এজন্য খুশি। কিন্তু আমাদের অনেক জায়গায় উন্নতি করতে হবে। আশা করি, ওমানের বিপক্ষে জয়ের পর সবাই খুশি। দর্শকদের ধন্যবাদ, যারা মাঠে এসেছেন খেলা দেখতে। দর্শকদের জন্য, দেশের জন্য একটা জয় পাওয়া অনেক বড় ব্যাপার।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: