নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ২০১৬ সালের নির্বাচনেও আমি দেখেছি তখন সাখাওয়াত ভাই (বিএনপির সাবেক মেয়র প্রার্থী) সুবিধা পেয়েছিলেন। এবারো আমার চেয়ে বেশি সুবিধা পাচ্ছেন তৈমুর আলম খন্দকার কাকা। বুধবার রাতে শহরের দেওভোগস্থ বাসভবন ‘চুনকা কুঠিরে’ নারায়ণগঞ্জ খেলাঘর আসরের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় আইভী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আমার মার্কা কিন্তু ওই আইভীই। যদিও আমার মার্কা ছিল মোমবাতি, মার্কা ছিল দোয়াত-কলম, মার্কা ছিল নৌকা, এখনো নৌকা কিন্তু আমি আপনাদের আইভী। তিনি বলেন, আমি তাকে অনুরোধ করবো কারো প্ররোচনায় প্রভাবিত না হয়ে ভোট চাইতে। আপনার ভোট আপনি চান, আমার ভোট আমি চাই। দুইজন যে যার মতো ভোট চাইবো।

মেয়র আইভী এসময় বলেন, আমি কখনোই পক্ষপাতিত্ব করে কাজ করিনি। আমি কখনওই দেখিনি কে কোন দল মতের বা কে কোন ধর্মের। আমি কোনদিন দেখিনি কে কোন দল করে। আমি সব সময়ই চেয়ারে বসে মানুষের সেবা করেছি। তিনি বলেন, ষড়যন্ত্র না হলে এতদিনে শীতলক্ষ্যা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর হয়ে যেত। এক সময়ে অনেকেই আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলত। কিন্তু এগুলো টিকেনি। কারণ আমি কোনো দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত না। আমি নিঃস্বার্থভাবে সবার সেবা করেছি। তাই আমার দাবি আছে ভোট চাওয়ার। আমাকে আবার সুযোগ দিবেন, বঞ্চিত করবেন না। তিনি বলেন, আমাকে সর্বস্তরের মানুষ পছন্দ করে। এ শহরের মানুষ আমার দ্বারা কখনো নির্যাতিত হবে না। শহরে কেউ খুন করবে, চাঁদাবাজি করবে আমি চুপ করে বসে থাকবো- এমনটা আমি না। নির্বাচন ঘিরে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র হচ্ছে প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হচ্ছে। আমরা জানি শহরবাসী জানে কারা এসব করছে। সুতরাং আমাদের এসব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হবে। অনেকেই বলেন ট্যাক্স বাড়িয়ে দিয়েছি। এটা মিথ্যা কথা। ট্যাক্স বরং কম দিচ্ছে নগরবাসী। আর এ ট্যাক্সের টাকায় আমি নগর ভবন করেছি যাতে মানুষ বলতে পারে এটা তাদের টাকায় করা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: