ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে চলছে তোলপাড়। কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে উপজেলা মহিলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আ.লীগের সদস্য বেবি ইয়াছমিনের ছেলে এম রিফাত বিন জিয়াকে। তবে পদ বাঁচাতে এই ছাত্রদল নেতা দাবি করেছেন, তিনি নিজের মাকে ‘মা’ বলে ডাকেন না।

২৪ ফেব্রুয়ারি ২১ সদস্যের এই আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। কমিটি ঘোষণার পরই তোপের মুখে পড়েন আহ্বায়ক এম রিফাত বিন জিয়া। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটির ১৪ জনই পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

এরপর এক বিবৃতিতে এম রিফাত বিন জিয়া বলেন, ‘আমার মা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত হওয়ার কারণে আমি ‘মা’ ডাকা থেকে বঞ্চিত। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এখন আমার ‘মা’। জিয়া পরিবার আমার পরিবার।’

তিনি আরও বলেন, ‘১৯৭৯ সাল থেকে আমার বাবা বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এ কারণে এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় একাধিকবার কারাবরণ করেছিলেন। নবগঠিত সরাইল উপজেলা ছাত্রদলকে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করতে আমাকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে।’

এ বিষয়ে এম রিফাত বিন জিয়ার মা বেবি ইয়াছমিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও ঢাকায় থেকে পড়াশোনা করে। আমার সঙ্গে তেমন যোগাযোগ হয় না। সে অন্য দলের রাজনীতি করে। আমার কাছে কম আসে। কাছে না আসলে কিভাবে ডাকবে?’

তিনি ঢাকা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় থেকে পড়াশোনা করলে সরাইলে রাজনীতি কিভাবে করবেন, এমন প্রশ্নের জবাবে বেবি ইয়ামিন বলেন, ‘সে মাঝে মাঝে আসে রাজনীতির জন্য।’

বিতর্কিত সরাইল উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির বিষয়ে জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফুজায়েল চৌধুরী বলেন, ‘কমিটি কেন্দ্রীয় সংসদ থেকে অনুমোদন করে দেয়া হয়েছে। কমিটি দেয়ার কয়েকদিন পর ২১ সদস্যের মধ্যে ১৪ জন পদত্যাগপত্র আমাদের কাছে দিয়েছেন। আমরা এগুলো কুমিল্লা বিভাগীয় টিমের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সংসদে পাঠাবো।’

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: