গাজার উত্তরাঞ্চলে ইসরায়েলি বিমান হামলায় হামাস কমান্ডারসহ অন্তত নয়জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার (১০ মে) এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলার বিষয়ে মন্তব্য করেনি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে তিনজন শিশু। এ খবর ডেইলি সাবাহ ও আল জাজিরার।

এর আগে, হামলার পর পর ফিলিস্তিনের মেডিকেল কর্মীরা জানিয়েছিল, অন্তত একজন নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। গত কয়েকদিন ধরেই জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ ও এর আশপাশের এলাকায় ইসরায়েলি পুলিশের সঙ্গে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ চলছে। ইসরায়েলি বাহিনী শান্তিপূর্ণ মুসল্লিদের ওপর বিনা উস্কানিতে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। একটি মেডিকেল সূত্র আনাদোলু এজেন্সিকে জানিয়েছে, ৫০ জনকে আহতাবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এদিকে ১৯৬৭ সালের ৬ দিনের যুদ্ধের স্মরণে ‘জেরুজালেম দিবস’ পালনের একটি র‌্যালিকে সামনে রেখে ফিলিস্তিনিদের ওপর ব্যাপক হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস ও স্টান গ্রেনেডের হামলায় শত শত ফিলিস্তিনি আহত হয়।

দখলদার বাহিনী হামলার জবাবে পাথর ও অন্যান্য বস্তু ছুঁড়ে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছে ফিলিস্তিনিরা। কিন্তু ইসরায়েলি বাহিনী আল-আকসা মসজিদের ভেতর ঢুকে স্টান গ্রেনেড ছুঁড়েছে।

শুক্রবার থেকে ইসরায়েলি পুলিশ আল-আকসা মসিজদে ফিলিস্তিনে মুসল্লিদের ওপর হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। এসব হামলার ঘটনায় অন্তত ৩০০ জন আহত হয়েছে। ফিলিস্তিন রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, আহতদের অধিকাংশের শরীরেই ইসরায়েলি পুলিশের ছোঁড়া রাবার বুলেটের আঘাত রয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: