করোনা ভাইরাসের কারণে এ বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা গত পহেলা এপ্রিল শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে গেছে। চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বুধবার তাদের বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত জানতে পারবেন। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি থেকে জানা গেছে, আগামী নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এই পরীক্ষা নেওয়া যায় কি না তা নিয়েই নীতি নির্ধারকদের মধ্যে আলোচনা চলছে। তবে মঙ্গলবার পর্যন্ত কোনো দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি।

ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, তাঁরা পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত আছেন। ১৫ দিন সময় পেলেই তাঁরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

তবে এই করোনার মধ্যেই পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে। ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের এক পরীক্ষার্থী ফোনে বলেন, তাঁরা চান করোনার এই সময়ে পরীক্ষা না হোক। এ বিষয়ে তাঁরা সরকারের কাছে স্মারকলিপিও দিয়েছেন।

এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল এপ্রিলের শুরুতে। কিন্তু পরীক্ষা শুরুর আগমুহূর্তে করোনার কারণে এ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। এ পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ১৩ লাখের বেশি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: