দিনাজপুরে একমঞ্চে যৌতুকবিহীন বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে ৪০ এতিম কন্যার। শুক্রবার (২৭ মে) দুপুরে দিনাজপুর শহরের গ্রিনভিউ কমিউনিটি সেন্টারে এই গণ বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় একসঙ্গে ৪০ জন এতিম মেয়েকে স্বামীর হাতে তুলে দেওয়া হয় । শিশু নিকেতনের নিবাসী এতিম মেয়েদের যৌতুকবিহীন এই বিয়ের আয়োজন করেছে লায়ন্স ক্লাব।

এসময় সাজ সজ্জার পাশাপাশি বরযাত্রীসহ আমন্ত্রিত প্রায় এক হাজার ২০০ অতিথির মধ্যে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা জয়নুল আবেদীন, জেলা সমাস সেবা অধিদফতরের উপপরিচালক আবু বকর সিদ্দিক, দিনাজপুর চেম্বারের সভাপতি রেজাহুমায়ুন চৌধুরী শামীমসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

দিনাজপুর শহরের ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় লায়ন্স ক্লাবের পরিচালনায় শিশু নিকেতন হোম। এখানে ১০১ জন এতিম মেয়ে লেখাপড়ার পাশাপাশি হাতের কাজ, সেলাই এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকে। এদের মধ্যে ৪০ জন এতিম মেয়ের আজ ধুমধাম ও উৎসবমুখর পরিবেশে বিয়ে দেওয়া হয়। ৪০ জন পাত্র ছিলেন দিনাজপুরসহ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার। পাত্ররা কেউ ব্যবসায়ী, কেউ গার্মেন্টসে চাকরি করেন, কেউ কৃষিকাজ আবার ওয়ার্কসপের দোকান করেন। আয়োজক শিশু নিকেতনের সাবেক সভাপতি রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী জানান, এ শিশু নিকেতন থেকে প্রতিবছর মেয়েদের বিয়ে দেওয়া হয়। এবার একসঙ্গে ৪০ জন এতিম মেয়েকে বিয়ে দেওয়া হলো। সাইকেল, সেলাই মেশিনসহ সংসারের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হয়েছে।

আজকের অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি মহৎ কাজে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, যৌতুক আমাদের সমাজে একটি ব্যাধি। এ ব্যাধি থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। বর্তমান যে ৪০ জন ছেলে যৌতুক ছাড়াই বিয়ে করেছেন, সারা দেশে এটি দৃষ্টান্ত। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এতিমদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন। তাদের স্বাবলম্বী করতে সমাজসেবা অধিদফতরের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্প দিয়েছেন। জানা গেছে, প্রতিষ্ঠাতার পর থেকে দিনাজপুর শিশু নিকেতন এ পর্যন্ত তিন শতাধিক এতিম মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: