ডেইলিকুমিল্লানিউজ ডেস্কঃ দুর্নীতির দুই মামলায় ঢাকার বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের পর টিভি ক্যামেরায় মুখ দেখানো নিয়ে হাতাহাতিতে জড়িয়েছেন হাইকোর্ট ও নিম্ন আদালতের বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে খালেদা জিয়া বকশিবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে অবস্থিত বিশেষ জজ আদালত ত্যাগ করার পরই সাংবাদিকদের ব্রিফ করতে দাঁড়ান তার আইনজীবীরা।

টিভি ক্যামরায় নিজের উপস্থিতি জানান দিতে অন্য সময়ের মতো ধাক্কাধাক্কি শুরু করেন আইনজীবীরা। ধাক্কাধাক্কির এক পর্যায়ে ঢাকা বার কাউন্সিলের সভাপতি অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলমের শরীরে লাথি মারেন সুপ্রিমকোর্টের জুনিয়র আইনজীবী মির্জা আল মাহমুদ।

এরপর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। শারীরিকভাবে একে অপরকে লাঞ্ছিত করতে থাকেন। পরে ঢাকা বারের আইনজীবীরা মির্জা আল মাহমুদেরর ওপর চড়াও হন। এতে তার শার্ট ছিঁড়ে যায়। পরে অবশ্য সিনিয়র আইনজীবীদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

এ ঘটনায় কারও আহত হওয়ার খবর পাওয়া না গেলেও হাতাহাতি ও টানাটানিতে অনেকের পোশাক ছিঁড়েছে বলে জানা গেছে।

ঢাকা জজকোর্টের এসি (প্রসিকিউশন) আমিনুর রহমান জানিয়েছেন, বিএনপির উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের থামায়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: