আন্দোলনের মুখে গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের (অর্ধেক ভাড়া) কার্যকরের ঘোষণা দিয়েছেন বাস মালিকেরা। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) বেলা ১১টায় কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউতে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ এ ঘোষণা দেন। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবেও বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে শুধুমাত্র ঢাকায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে গণপরিবহনে হাফ ভাড়া নেওয়া হবে। ঢাকার বাইরে সবাইকে ফুল ভাড়া দিতে হবে বলেও জানান তিনি। খন্দকার এনায়েত বলেন, ভ্রমণকালে বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। প্রয়োজনে তা প্রদর্শন করতে হবে। শুধু রাজধানী ঢাকাতেই শিক্ষার্থীদের জন্য গণপরিবহনে এই হাফ পাস (অর্ধেক ভাড়া) কার্যকর থাকবে। রাজধানীর বাহিরে এই সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য নয়। তিনি বলেন, গণপরিবহনে হাফ পাশের জন্য শিক্ষার্থীদের নিজ প্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ড দেখাতে হবে। প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত এই ভাড়া কার্যকর থাকবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ও সরকারি বন্ধের দিনে এই ভাড়া কার্যকর থাকবে না।

এর আগে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির নেতা খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ বলেছিলেন, ঢাকায় নগর পরিবহনের যে বাসগুলো চলে, তার মালিকদের ৮০ শতাংশই গরিব। একটা বা দুটো বাস চালিয়ে তাদের সংসার চলে। তাদের বাচ্চারাও স্কুল কলেজে যায়। এ কারণে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের প্রস্তাব হচ্ছে, বাস মালিকদের ক্ষতিপূরণ বা ভর্তুকির বিষয়টি নির্ধারণ করেই হাফ ভাড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কোনো তহবিল থেকে এই ভর্তুকি আসবে সেটিও নির্ধারণ করতে হবে।

এদিকে হাফ ভাড়া কার্যকরের দাবিতে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে। আজ বিটিআরসি ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে তারা। এর আগে শিক্ষার্থীদের জন্য গণপরিবহনে হাফ পাস (অর্ধেক ভাড়া) বাস্তবায়নে পরিবহন নেতাদের সঙ্গে দুইবার বৈঠক করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই এসব বৈঠক শেষ হয়েছে। বৈঠকে উল্টো ভর্তুকি দাবি করেন বাস মালিকরা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: