সম্প্রতি বিতর্কিত বক্তব‌্য ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে ফাঁস হওয়া ফোনালাপের জেরে ডা. মুরাদকে প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে পদত‌্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) তিনি মন্ত্রণালয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার আগে দুপুরের দিকে ‘ক্ষমা’ চেয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন। লেখেন, ‘আমি যদি কোন ভুল করে থাকি অথবা আমার কথায় মা-বোনদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী মা দেশরত্ন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল সিদ্ধান্ত মেনে নিবো আজীবন। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’

এর ঘণ্টা তিনেক পর নিজের পোস্টে নিজেই মন্তব্য করেন মুরাদ। লেখেন, ‘ভুল করে সবাই নিজের ভুল মেনে নেয়ার সততা দেখায় না। আল্লাহ আপনাকে সঠিকভাবে ফিরিয়ে আনুন সকলের মাঝে।’ এদিকে নিজের পোস্টে নিজেই কমেন্ট করে হাস্যরসের পাত্র হয়েছেন মুরাদ হাসান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকে নিয়ে এরইমধ্যে ট্রল শুরু হয়েছে। তার মন্তব্যে ১১ হাজার হাহা রিয়েক্ট ও দুই হাজারের বেশি রিপ্লাই জমা পড়েছে। প্রশ্ন উঠেছে, মুরাদ হাসানের পেজটি আসলে কে বা কারা চালাচ্ছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: