বর্তমানে বাংলাদেশে নিত্যপণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে আছে দাবি করে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশেও তার প্রভাব পড়েছে। তবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ভোজ্যতেলসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে।

বুধবার (৮ জুন) জাতীয় সংসদের তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান। সংসদ সদস্য মো. শফিউল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব তথ্য তুলে ধরেন। সংসদের মৌখিক ও লিখিত প্রশ্নে গণফোরামের মোকাব্বির খান, আওয়ামী লীগের শফিউল ইসলাম, ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, জাতীয় পার্টির সৈয়দ আবু হোসেন, রুস্তম আলী ফরাজী ভোজ্যতেলসহ নিত্যপণ্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে তারা সরকারের পদক্ষেপ জানতে চান।

এ সময় দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপ তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, সরকারের পদক্ষেপের ফলে ভোজ্যতেলসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে। সরকারের পদক্ষেপে পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল হতে শুরু করেছে। নিত্যপণ্যের বাজার স্থিতিশীল থাকবে। কোনো পণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্ট করার সুযোগ থাকবে না।

এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পরিবহন খরচ বৃদ্ধির ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যের দাম কিছুটা বেড়েছে। তবে এতে বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানিতে উল্লেখযোগ্য কোনো প্রভাব পড়েনি। বরং বাংলাদেশ থেকে পণ্য রপ্তানির পরিমাণ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। পণ্য পরিবহন ব্যয় বাড়লেও বাংলাদেশে এর নেতিবাচক তেমন কোনো প্রভাব দৃশ্যমান হয়নি।

মামুনুর রশীদ কিরণের প্রশ্নের বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরে ভারতে রফতানির পরিমাণ ছিল এক হাজার ২৮৯ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ডলার এবং ভারত থেকে আমদানি হয়েছে আট হাজার ৫৯৭ দশমিক ৬০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য।

যৌনকর্মীদের শ্রমজীবী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। নাসরিন জাহান রত্নার প্রশ্নের জবাবে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, নিম্নতম মজুরি বোর্ডের আওতায় ৪৩টি শিল্প খাতে একাধিকবার নিম্নতম মজুরি হার নির্ধারণ বা পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে।

ওয়ার্কার্স পার্টির সংসদ সদস্য লুৎফন নেসা খানের প্রশ্নের জবাবে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, শ্রম আইনে সেক্স ওয়ার্কারদের শ্রমজীবী মানুষ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। তাদের শ্রমজীবী মানুষ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া এবং ঘণ্টা হিসেবে মজুরি নির্ধারণ করার জন্য সরকারের কোনো পরিকল্পনা আপাতত নেই।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: