ভোলার লালমোহনের ফরাজগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে ভোটে হেরে মো. রফিকুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ক্ষোভে গরু চুরির অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (১২ মার্চ) ভোলার লালমোহনের ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডে এই ঘটনা ঘটে। রফিকুল ইসলাম ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর লালমোহনের ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী।

এলাকাবাসীরা জানান, বেশ কয়েক দিন ধরে উপজেলার ফরাজগঞ্জসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গরু চুরির ঘটনা বেড়ে যায়। কিন্তু গরু চোর এখনো ধরা পড়েনি। এসময় রফিকুল ইসলামের বাড়িতেও নতুন নতুন গরু দেখতে পায় স্থানীয়রা। শুক্রবার (১২ মার্চ) রফিকুলের বাড়িতে নতুন আরও ২টি গরু দেখে সন্দেহ বেড়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যান ফরাদ হোসেন মুরাদকে জানালে তিনি চৌকিদার পাঠিয়ে ২টি গরু জব্দ করেন। এসময় রফিকুল ইসলাম পালিয়ে যান। এলাকাবাসীরা আরও জানান, নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার জন্য অনেক টাকা খরচ করেও হেরে যান তিনি। পরে ক্ষোভে রফিকুল তার ছেলেকে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গরু চুরি করেছেন।

ফরাজগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান ফরাদ হোসেন মুরাদ বলেন, এলাকাবাসী অভিযোগ করলে চৌকিদার পাঠিয়ে রফিকুলের বাড়ি থেকে গরু জব্দ করি। পরে শনিবার মান্নান নামের এক ব্যক্তি নিজেকে প্রকৃত মালিক দাবি করে উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে গরু নিয়ে যায়। লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ বলেন, এ বিষয়ে কেউ কোনো লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রায়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: