পাকিস্তানে ভোজ্য তেলের দাম লিটারপ্রতি এক লাফে ২১৩ রুপি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০৫ রুপিতে। এর ফলে দেশটিতে এখন ঘিয়ের চেয়ে তেলের দাম বেশি। তেলের পাশাপাশি ঘিয়ের দাম কেজিপ্রতি ২০৮ রুপি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫৫ রুপি। মঙ্গলবার হঠাৎ করে ভোজ্য তেল ও ঘিয়ের দাম রেকর্ড পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতারাও বিপদে পড়েছেন।

করাচিতে ইউটিলিটি স্টোরস করপোরেশনের বরাত দিয়ে ডন অনলাইন জানিয়েছে, মঙ্গলবার (১ জুন) থেকে সরকার নির্ধারিত নতুন দাম কার্যকর হবে। তবে কী কারণে সরকার এক লাফে ঘি ও তেলের দাম এতোটা বাড়িয়েছে তার কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি সংস্থাটি। ডন অনলাইন জানিয়েছে, ঘিয়ের দাম ২০৮ রুপি বাড়ানো এখন থেকে খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি ৫৫৫ রুপি এবং তেলের দাম ২১৩ রুপি বাড়ানোয় প্রতি লিটার ৬০৫ রুপিতে বিক্রি হবে।

ভোজ্য তেলের জন্য পাকিস্তান পুরোপুরিই আমদানি নির্ভর। দেশটির আমদানিকৃত সিংহভাগ পাম তেল আসে ইন্দোনেশিয়া থেকে। পাকিস্তান তার মোট আমাদিকৃত ভোজ্যতেলের ৮৭ শতাংশ ইন্দোনেশিয়া থেকে এবং মাত্র ১৩ শতাংশ মালয়েশিয়া থেকে আমদানি করে। তবে গত মাসে ইন্দোনেশিয়া পাম তেলের রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় পাকিস্তানকে সঙ্কটের মুখে পড়তে হয়।

হঠাৎ করে পাকিস্তানে দ্রব্যমূল্যের এই ঊর্ধ্বগতির জন্য ব্যাপক মুদ্রাস্ফিতিকে দায়ী করা হচ্ছে। দেশটিতে এপ্রিলে মুদ্রাস্ফিতি বৃদ্ধির হার ছিল ১৩ দশমিক ৪ শতাংশ। গত বছরের তুলনায় দেশটিতে খাদ্যপণ্যের দাম বেড়েছে ১৭ দশমিক ৩ শতাংশ এবং পরিবহন ব্যয় বেড়েছে ৩১ দশমিক ৮ শতাংশ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: