একটি রুমের ভেতর ক্রিকেট ব্যাট হাতে এক ব্যক্তির পেছন পেছন তাড়া করছেন এক নারী। নাগাল পেতেই উল্টা পাল্টা মার শুরু করেন। তা থেকে বাঁচতে ওই ভুক্তভোগী ব্যক্তি বারবার পালানোর চেষ্টা করছেন, কিন্তু সেই নারী কিছুতেই পেছন ছাড়ছেন না। বরং হাতের কাছে যা পাচ্ছেন তাই ছুড়ে মারছেন ভুক্তভোগীর দিকে। জানা গেছে, ওই দুজন সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। অর্থাৎ স্বামীকেই ব্যাট দিয়ে পেটাচ্ছিলেন স্ত্রী। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। আর সেই দৃশ্য ধরা পড়েছে সিসি ক্যামেরায়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানা যায়,রাজস্থানে একটি সরকারি স্কুলের প্রিন্সিপাল তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্থানীয় আদালতে পারিবারিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছিলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ওই ব্যক্তিকে নিরাপত্তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি, স্বামীর অভিযোগ তদন্ত করতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভিডিওতে হরিয়ানার খারকারা সরকারি স্কুলের প্রিন্সিপাল অজিত যাদবকে এক নারী ক্রিকেট ব্যাট নিয়ে তাড়া করতে দেখা যায়। ধারণা করা হচ্ছে, তিনিই অজিতের স্ত্রী সুমন যাদব। তাকে ব্যাটের পাশাপাশি আয়রনের প্যানসহ আরও কিছু জিনিসপত্র দিয়ে অজিতকে মারতে দেখা যায়। একটি ফুটেজে মারধরের সময় তাদের শিশুপুত্রকেও পাশে দেখা গেছে।

অজিত যাদব জানান, তাদের বিয়ে হয়েছে সাত বছর। কিন্তু এক বছর যাবৎ তার ওপর নির্যাতনের মাত্রা বেড়েছে। এর প্রমাণ জোগাড় করতেই তিনি ঘরের ভেতর সিসি ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন। তিনি বলেন, আমাদের প্রেম করে বিয়ে হয়েছিল। আমি কখনো সুমনের গায়ে হাত তুলিনি। কিন্তু স্ত্রী কেন ওই স্কুলশিক্ষককে পেটাতেন, তার কারণ জানা যায়নি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: