ডেস্ক রিপোর্টঃ গত শনিবার ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে হাথুরুর লঙ্কা। আর সেই ম্যাচের উইকেট বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র পছন্দ মতো না বানিয়ে বরং সেই তথ্য পাচারের অভিযোগ উঠেছে চিফ পিচ কিউরিটর গামিনি ডি সিলভার বিরুদ্ধে।

তিনি ফাইনালের আগের দিন উইকেটে পানি দেওয়া, শ্রীলংকান টিম ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে মিটিং, বাংলাদেশের টিম ম্যানেজম্যানেন্টের চাওয়া অনুযায়ী উইকেট না বানানোর অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। গত রবিবার ত্রকাত্তর টেলিভিশনের এক প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে।

তবে আজ সোমবার (২৯ জানুয়ারি) গামিনির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের বিষয়ে কোনো তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে কি না, কিংবা এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র ভাবনা জানতে চাওয়া হলে সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, দল ভালো করলে তখন কিন্তু এগুলা নিয়ে আর আলোচনা হয়না। ম্যাচের রেজাল্ট যখন আমাদের আশানুরুপ হয় না তখন আলোচনায় আসে বিভিন্ন বিষয়। আমি কোনো স্পেসিফিক বিষয় নিয়ে কথা বলব না। যদি এ ধরনের কোনো বিষয় আমাদের দৃষ্টিগোচর হয় অবশ্যই বোর্ড তা দেখে। এটা শুধুমাত্র গ্রাউন্স নিয়েই নয় অন্যান্য আরো অনেক বিষয়ই থাকে। প্রত্যেকটা বিষয় আমাদের নজরে আছে।

কিন্তু নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবর বলছে, গামিনির কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে, কেন পিচ থেকে স্বাগতিক দল কোনই ফায়দা পায়নি। শেরে বাংলার উইকেট কেন স্বাগতিকদের শক্তি ও সামর্থ্য উপযোগী করে তৈরি হয়নি? এটাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ বলেই ধরে নেওয়া যায়। দেখা যাক গামিনি কি জবাব দেন, তার ব্যাখ্যায় বোর্ড সন্তুষ্ট হয় কি না।

উল্লেখ্য, শুধু পিচ নির্মাণের ত্রুটি ধরা পড়ার খবরেই নয়, গামিনির আউটফিল্ড পরিচর্যা করা নিয়েও আছে রাজ্যের কথা বার্তা। শেরে বাংলার সবুজ আউটফিল্ড এখন অনেকটা ধূসর। হয়তো বোর্ড তার কারণও জানতে চেয়েছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: