ডেস্ক রিপোর্টঃ বঙ্গোপসাগরে ভারতের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আন্দামানে এক মার্কিন নাগরিক খুন হয়েছেন। অজ্ঞাত পরিচয় আততায়ীদের হাতে খুন হয়েছেন তিনি। তবে এখনও পর্যন্ত তাঁর লাশ উদ্ধার হয়নি । বহির্বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন নর্থ সেন্টিনেল দ্বীপের আদিবাসীদের আক্রমণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বুধবার সন্ধ্যায় পুলিশের পক্ষ থেকে খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই তরুণ পর্যটককে সংরক্ষিত নর্থ সেন্টিনেল দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ৭ মত্স্যজীবীকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

নিহত ওই মার্কিন নাগরিকের নাম জন অ্যালেন চাও। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, গির্জার যাজক ছিলেন তিনি। ঘন ঘন আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে যাতায়াত করতেন। সেন্টিনেল প্রজাতির মানুষের সঙ্গে যেচে আলাপ করতেন। চেষ্টা করতেন তাঁদের খ্রিষ্টান ধর্মে দীক্ষিত করতে।

‘আন্দামান শিখা’ সংবাদপত্রের দাবি, অতীতে মোট পাঁচবার আন্দামান ঘুরে গিয়েছিলেন জন। দেখা করতে চেয়েছিলেন আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে। যাতে তাঁদের কাছেও খ্রিষ্টান ধর্মের বার্তা পৌঁছে দিতে পারেন। মৃত্যুর আগে গত পাঁচদিনে একাধিকবার নর্থ সেন্টিনেল আইল্যান্ডে গিয়েছিলেন। গত বুধবারও নাকি নর্থ সেন্টিনেল আইল্যান্ডে ঢোকার চেষ্টা করেন অ্যালেন। কিন্তু বিফল হন। দু’দিন পর ফের স্থানীয় মত্স্যজীবীদের সাহায্যেসেখানে হাজির হন তিনি।

ওই মত্স্যজীবীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের জেরা করে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে। জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার নর্থ সেন্টিনেল আইল্যান্ডের কাছাকাছি পৌঁছে তাদের নৌকো থেকে নেমে যান অ্যালেন। ছোট ডিঙি নিয়ে একাই দ্বীপটির দিকে এগিয়ে যান। সেখানে পৌঁছানো মাত্রই ঝাঁকে ঝঁকে তির উড়ে আসে তাঁর দিকে। তা সত্ত্বেও হাঁটা থামাননি তিনি। এরপর তাঁকে বালির উপর ফেলে, গলায় দড়ি পেঁচিয়ে টানতে টানতে সমুদ্র সৈকতের দিকে নিয়ে যেতে শুরু করে একদল আদিবাসী মানুষ।

সূত্রঃ ইত্তেফাক

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: