কুমিল্লার বরুড়া ও তিতাস আরও দুই জন কভিড-১৯ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আজ বুধবার দুপুরে ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. শাহাদাৎ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে কুমিল্লায় মোট ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা খোশবাস ৩নং উত্তর ইউনিয়নের কেমতলী গ্রামের সাবেক প্রয়াত খালেক চেয়ারম্যানের বাড়ির মোসাম্মৎ ফেরদৌসি(২৭)নামে এক নারী করোনা রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া গেছে। আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) বিকাল স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নিশাত সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আক্রান্ত নারী বরুড়া উপজেলার খোশবাস (উঃ) ইউনিয়নের কেমতলী গ্রামের জহির উদ্দিনের মেয়ে।

গত পনোরো দিন পূর্বে ফেরদৌসির বোনের বাসায় ঢাকার মীরপুরে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে গত সোমবার বাপের বাড়ি কেমতলী আসেন। পরে পাশের দুই বাড়িতেও নারী বিভিন্ন প্রয়োজনে যান। তার পরিবারের বাবা ও ভাই ও পাশের দুই প্রতিবেশীর পরিবারের লোকজনও প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে বরুড়া বাজারসহ বিভিন্ন হাটে বাজারে ও কর্মস্থলে যাতায়াত করেন।

আসার পর তার শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে স্থানীয়দের দেয়া তথ্যমতে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাগন তার দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরিক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠান, সেখান থেকে আজ বুধবার পরিক্ষা শেষে ফেরদৌসি বেগমের করোনা ভাইরাস পজেটিভ আসে। বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নিশাত সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফেরদৌসি আক্তারের করোনা পজিটিভ আসার পর বরুড়ায় এলাকায় চরম আতংক বিরাজ করছে।

এ পর্যন্ত বরুড়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে ১৫ জনের নমুনা সংগহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭ জনের রির্পোট নেগেটিভ ও একজনের রির্পোট পজেটিভ পাওয়া গেছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: