বিশ্বকাপে ৫ ম্যাচেই হারবে বাংলাদেশ কল্পনাও করিনি: ডু প্লেসি

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলতি আসরে চরম ভরাডুবি দেখেছে বাংলাদেশ দল। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের বাধা পেরোতে পারলেও সুপার টুয়েলভে একটিও জয়ের দেখা পায়নি টাইগাররা। হেরেছে পাঁচ পাঁচটি ম্যাচেই। টাইগারদের এমন পারফরম্যান্সে হতাশ হয়েছে ভক্ত সমর্থকরা। আক্ষেপ ও অবাক হওয়ার চিত্র দেখা গেছে ক্রিকেট বিশ্লেষক, সাবেকদের কণ্ঠেও। তাদেরই একজন দক্ষিন আফ্রিকা ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি।

সম্প্রতি এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে এই প্রোটিয়া ক্রিকেটার জানালেন সাকিব-মুশফিকদের সুপার টুয়েলভের ৫টি ম্যাচেই পরাজয় অবাক করেছে তাকে। তিনি কল্পনাও করেননি একে একে ৫টি ম্যাচেই হারবে টাইগাররা। ডু প্লেসি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি পাঁচটির মাঝে পাঁচটি ম্যাচেই হার আশা করিনি।কিন্তু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ফর্ম এবং মোমেন্টামটা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যখন বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে খেলতে আসেন তখন আপনাকে ভালো পারফর্ম করতে হবে এবং ভালো শুরু করতে হবে। আমি যদি ভারতকে উদাহরণ হিসেবে দেখাই তাহলে দেখবেন তাদের শুরুটা ভালো হয়নি। কারণ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়েরা ফর্মে ছিল না। তাদের ফর্মে ফিরতে ২-৩ টা ম্যাচ লেগেছিল। ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে।’

বিশ্বকাপে খেলতে যাওয়ার আগে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। টানা জয়ে আত্মবিশ্বাস তৈরি হলেও সেটা কাজে দেয়নি বিশ্বকাপে। প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আয়ার‌ল্যান্ডের বিপক্ষে হারার পর বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচে হোঁচট খায় স্কটল্যান্ডের কাছে। বাংলাদেশের জন্য যেটা খানিকটা অপ্রত্যাশিতই ছিল। স্কটিশদের কাছে হারায় তলানিতে ঠেকে বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাস। ওমান ও পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয় তুলে নিয়ে সুপার টুয়েলভে গেলেও সেই ধারা বজায় রাখতে পারেনি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। যেখানে পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিতেই হারে বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বাগে পেলেও হারাতে পারেননি সাকিব আল হাসান-মুশফিকুর রহিমরা। আইসিসির টুর্নামেন্টে ভালো করতে ক্রিকেটারদের ফর্মটা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন ডু প্লেসি। আর সেখানেই হোঁচট খেয়েছে বাংলাদেশ। একমাত্র সাকিব ছাড়া আর কেউ সেভাবে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। তাতে শূন্য হাতে ফিরতে হয়েছে টাইগারদের।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  

ফেসবুকে আমরাঃ