যশোর সদরের বসুন্দিয়ার শম্পা বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধূ বিয়ের ১০ বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। সোমবার (১৮ জুলাই) রাতে শহরের কুইন্স হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম হয়। একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম হওয়ায় শম্পা বেগমের পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইছে। প্রসূতি শম্পা বেগম উপজেলার বসুন্দিয়া খান পাড়ার মালয়েশিয়া প্রবাসী কুদ্দুস মোল্লার স্ত্রী। সে এবং শিশুরা স্বুস্থ্য আছে।

শম্পার পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে শম্পার প্রসববেদনা উঠলে তাকে দ্রুত কুইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই রাত সাড়ে ৯টার দিকে ডা. প্রতিভা ঘরাইর তত্ত্বাবধানে সিজারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম হয়। এদের মধ্যে দুটি পুত্র ও দুটি কন্যা সন্তান। শম্পা ও তিন শিশু বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন।

যশোর সদর উপজেলার বসুন্দিয়া এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী কুদ্দুস মোল্লা ২০১২ সালের ২৬ জুলাই শম্পাকে বিয়ে করেন। জরায়ুর সমস্যার কারণে বিয়ের দশ বছর ধরে সন্তান ধারণ করতে পারছিলেন না শম্পা। সর্বশেষ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে সন্তান সম্ভবা হন তিনি। চারমাস আগে সন্তান সম্ভবা স্ত্রীকে দেশে রেখে মালয়েশিয়ায় কর্মস্থলে পাড়ি জমান কুদ্দুস।

শম্পা বেগম জানান, তার স্বামী মালয়েশিয়া প্রবাসী কুদ্দুস মোল্লার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে। তিনিও খুব খুশি হয়েছেন বলে জানান। চার সন্তানের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

কুইন্স হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. প্রতিভা ঘরাই বলেন, নবজাতকদের স্বাভাবিক ওজন হলো আড়াই কেজি। কিন্তু এই চার নবজাতকের মধ্যে একজনের ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় কম হওয়ায় তাকে আদ-দ্বীন হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। ওই শিশুটি দ্রুত সুস্থতা লাভ করবে বলে আমরা আশাবাদী।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: