ভাইরাল ফোনালাপ নিয়ে পবিত্র হারাম শরিফে দাঁড়িয়ে যা বললেন মাহি

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপ নিয়ে মুখ খুলেছেন বাংলা সিনেমার বর্তমান সময়ের চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। ওই অডিওক্লিপে কথা বলতে শোনা যায় তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, চিত্রনায়ক ইমন ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিকে। সেই অডিও ক্লিপটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই তুমুল আলোচনার শুরু হয়।

অডিও ক্লিপটি সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও ফেসবুকে একটি ভিডিওতে এসে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। ওমরাহ করতে বর্তমানে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন মাহি। সেখান থেকে ২ মিনিট ৩০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ক্লিপ শেয়ার করেছেন তিনি। সেখানে মাহি নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। ওই ভিডিও’র ক্যাপশনে মাহি লিখেছেন, ‘বিকৃত এবং কুরুচিপূর্ণ ব্যবহার ও ভাষার প্রতিত্তোরের ভাষা আমার জানা ছিল না, নম্রতা আমার পারিবারিক শিক্ষা…।’

ভিডিওর শুরুতেই মাহি বলেন, আমি মাহিয়া মাহি। আমি এখন পবিত্র হারাম শরিফে আছি মক্কাতে। সবাই জানেন আমি ওমরাহ পালন করতে এসেছি। সেজন্য ফোনকল ধরতে পারছি না।’ এরপরই মাহি সেই অডিও ক্লিপটি নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন। মাহি বলেন, সেদিনও আমি বেশ বিব্রত ছিলাম, নিজের আত্মসম্মানবোধ কতটুকু আঘাত লেগেছে নিজে জানি আর আল্লাহ জানে। আমি আজকেও ভীষণভাবে বিব্রত বোধ করছি। নিজের কাছে নিজে ছোট হয়েছি। দেশবাসীর কাছেও ছোট হলাম। আপনারা নিজের থেকে চিন্তা করে দেখবেন, এই ভাষার প্রতি উত্তর এই ব্যবহারের প্রতিউত্তর আমার কি দেওয়ার ছিল? আমার কিছু বলার ভাষা সেদিন ছিল না। সেজন্য আমি কিছু বলিনি। আমার মনে হয়েছে যেভাবে চুপ থাকা উচিত, পাশ কাটিয়ে যাওয়া উচিত সেটাই করেছি। এটা দুই বছর আগের ঘটনা ছিল।’

এরপর সাংবাদিকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করে মাহি বলেন, ‘সাংবাদিক ভাইদের কাছে আমি দুঃখিত ফোন না ধরতে পারায়। এই বিষয় নিয়ে কথা বলার মতো মানসিক অবস্থা আমার এখন নেই। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ সাক্ষী আমার কোনো দোষ ছিল না। আমি শুধু পরিস্থিতির শিকার ছিলাম।’

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ