পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, তিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছেন যে কীভাবে তারা রাশিয়ার কাছ থেকে জ্বালানি কিনেছে।

ভারতের আসাম থেকে ফিরে সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

আসামে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা উল্লেখ করে মোমেন বলেন, ভারত জ্বালানি সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা (ভারত) এটি টেকনিক্যালি করেছে। আমরা ভারতের কাছ থেকে এ বিষয়ে পরামর্শ চেয়েছি… তারা বড় দেশ, তারা ম্যানেজ করতে পারে। আমরা ছোট দেশ, আমাদের ওপর মাতুব্বরি বেশি।

তিনি জানান, জয়শঙ্করের সঙ্গে তিনি ভারতের গম রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা নিয়েও আলোচনা করেছেন। জয়শঙ্কর তাকে বলেছেন যে বাংলাদেশের জন্য এ নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয়।

তিনি আরও বলেন,এমনকি বেসরকারিভাবেও ভারত থেকে গম আমদানি করা যাবে, যদি তা তৃতীয় কোনো দেশের জন্য না হয়।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তার জন্য শক্তিশালী আঞ্চলিক সংগঠন চাই। আমরা বহুপাক্ষিকতার প্রবক্তা। আমরা এটাকে দুর্বল করতে চাই না।

এদিকে, বাংলাদেশকে জ্বালানি তেল ও গম দিতে চেয়েছে রাশিয়া। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার ভয়ে আমরা তা নিচ্ছি না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

রাশিয়ার প্রস্তাব সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা (রাশিয়া) আমাদের বিভিন্ন শর্ত দিয়েছে…শর্তগুলো অস্থিরতা তৈরি করতে পারে বলে সেগুলো গ্রহণযোগ্য নয়।

গত ২৮-২৯ মে আসামের গুয়াহাটিতে আন্তর্জাতিক নদী সম্মেলনের পাশাপাশি তিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর মন্ত্রী, কর্মকর্তা ও বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত ছিলেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: