পাকিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাবা কামারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে লাহোর ম্যাজিস্টেরিয়াল কোর্ট। জানা গেছে, মসজিদে নাচের ভিডিও ধারণ করায় বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) তার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে দেশটির আদালত। এ খবর প্রকাশ করেছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন। অভিনেত্রী সাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি এবং আরও কয়েকজন মিলে লাহোরের একটি ঐতিহাসিক মসজিদে নাচের ভিডিওর শ্যুটিং করেছেন।

আদালতে এই মামলার শুনানির সময় একাধিকবার অনুপস্থিত থাকায় সাবা এবং গায়ক বিলাল সাইদের বিরুদ্ধে লাহোরের ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এই পরোয়ানা জারি করেছে। গত বছর লাহোর পুলিশ সাবা এবং বিলালের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের দণ্ডবিধির ২৯৫ ধারায় একটি অভিযোগে দায়ের করে। তাদের অভিযোগ, অভিনেত্রী এবং গায়ক লাহোরের ওয়াজির খান মসজিদে ‘অশোভন’ কার্যকলাপ করেছেন।

মামলার এফআইআরে বলা হয়েছে, তারা মসজিদের নাচের ভিডিও শ্যুট করে সেখানকার পবিত্রতা নষ্ট করেছেন। পাকিস্তানের জনগণও এই বিষয় নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল। এ ঘটনায় ক্ষমা চেয়ে সাবা বলেছিলেন, “আমরা একটি বিয়ের দৃশ্য শ্যুট করেছিলাম। কিন্তু তার সঙ্গে কোনও গান ব্যবহার করা হয়নি বা পরবর্তী সময়েও প্রযুক্তির মাধ্যমে কোনও গান যুক্ত করা হয়নি।”

বলিউডেও কাজ করেছেন সাবা। ২০১৭ সালে ‘হিন্দি মিডিয়াম’ ছবিতে ইরফান খানের বিপরীতে দেখা গিয়েছিল তাকে। সেই সময় বেশ প্রশংসিত হয়েছিল তার অভিনয়। জানা গেছে, লাহোরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী মসজিদ ওয়াজিদ খান। সেখানে নাচের দৃশ্য ধারণ করেন সাবা। এতে মসজিদের পবিত্রতা নষ্ট করেছেন তারা। এমন অভিযোগে তাদের ওপর বেশ চটেছিল পাকিস্তানে জনগণ। নেটদুনিয়ায় অভিনেত্রীকে হুমকিও দেওয়া হয়েছিল।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: