এবারের বাজেটে রড তৈরির কাঁচামালে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ২০০ টাকা বাড়ানো হয়েছে। ফলে পণ্যটির দাম আরও বাড়ার শঙ্কা দেখছেন সংশ্লিষ্টরা। এর সঙ্গে ডলার সংকট, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ, স্ক্র্যাপ ও কাঁচামাল আমদানি খরচ বৃদ্ধিও চোখ রাঙাচ্ছে রডের বাজারে।

সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা বলেছেন, নির্মাণসামগ্রীর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে রড। এর দাম বাড়লে রাস্তাঘাট ব্রিজ, কালভার্টসহ অবকাঠামো উন্নয়নকাজে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। বাজেটে স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত কাঁচামাল স্ক্র্যাপ (পুরোনো লোহা) সংগ্রহের ওপর প্রতি টনে ভ্যাট নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ৪০০ টাকা, যা আগে ছিল ১ হাজার ২০০ টাকা।

স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত মেলটেব বা গলানো স্ক্র্যাপে ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে ১ হাজার ২০০ টাকা, যা আগে ছিল ১ হাজার টাকা। এ ছাড়া গর্দা বা মেলটেব থেকে প্রস্তুতকৃত অন্তর্বর্তীকালীন কাঁচামাল হিসেবে পরিচিত বিলেট ও ইনগটের জন্য ভ্যাট নির্ধারণ করা হয় ২ হাজার ২০০ টাকা, যা আগে ছিল ২ হাজার টাকা।

স্থানীয় রড ব্যবসায়ীরা বলেছেন, বাড়তি ভ্যাটের কারণে প্রতি টন রডের বর্তমান যা দাম, তার চেয়ে আরও ১ হাজার টাকা যোগ হবে। বাজারে এখন প্রতি টন রড ৮৪ থেকে ৮৮ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: