‘অপারেশন লন্ডন ব্রিজ’। ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পরে তার শেষকৃত্য সংক্রান্ত সম্পূর্ণ গোপন পরিকল্পনার নাম। সেই গোটা পরিকল্পনাই এবার ফাঁস হয়ে গেল।

অন্তত তেমনটাই দাবি করছে মার্কিন সংবাদ সংস্থা ‘পলিটিকো’। বাকিংহাম প্যালেস থেকে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। মুখে কুলুপ ব্রিটিশ সরকারেরও।

সবচেয়ে বেশি দিন ব্রিটেনের রানি হিসেবে থাকার নজির গড়েছেন ৯৫ বছরের এলিজাবেথ। মার্কিন সংস্থার দাবি, নবতিপর এলিজাবেথের মৃত্যুর পরে কী কী হবে এখন থেকেই তা ঠিক হয়ে রয়েছে।

ঠিক কী কী পরিকল্পনা রয়েছে? দাবি করা হচ্ছে, এলিজাবেথের মৃত্যুর ১০ দিন পরে তাকে সমাধিস্থ করা হবে। এর আগে তার ছেলে প্রিন্স চার্লস ব্রিটেনের চারটি দেশে সফর করবেন। ব্রিটেনের সংসদে তিন দিন রাখা হবে রানির মরদেহ। রানির শোকসভার আয়োজন করা হবে সেন্ট পলস ক্যাথিড্রালে। এর পাশাপাশি রানির মৃত্যুর দিন ‘জাতীয় শোক’ ঘোষণা করা হবে।

রানির মৃত্যুর পরে তার মরদেহ দেখতে যে হাজার হাজার মানুষের সমাগম হবে সেসব বিষয়েও বিস্তারিত বলা হয়েছে।সেই মতো পুলিশি প্রহরা বন্দোবস্ত করার কথা ভাবা হয়েছে। খাদ্য সংকট ও যানজট তীব্র আকার ধারণ করতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে। ফলে পুরো বিষয়টিকে কীভাবে সামলানো হবে তার পরিকল্পনা আগাম করে রাখা হয়েছে ওই পরিকল্পনায়।

উল্লেখ্য, ‘অপারেশন লন্ডন ব্রিজ’-এর কথা আগেও শোনা গিয়েছিল। ২০১৭ সালে ‘দ্য গার্ডিয়ান’-এ প্রকাশিত হয়েছিল একটি দীর্ঘ নিবন্ধ। তাতে দাবি করা হয়েছিল, কীভাবে এলিজাবেথের মৃত্যুর পরে রাজসিংহাসনে চার্লসকে অভিষিক্ত করার কথা ঘোষণা করা হবে সেন্ট জেমস প্যালেসে তা আগে থেকেই ঠিক হয়ে আছে। তখনও ব্রিটেনের রাজ পরিবার কোনো মন্তব্য করেনি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: