নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর চর সৈয়দপুরের আল-আমিননগর এলাকায় একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া লাশের মধ্যে একজন পুরুষ ও একজন নারী রয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

আজ দুপুরে এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। লঞ্চটিতে প্রায় অর্ধশতাধিকেরও বেশি যাত্রী ছিলেন। যাদের মধ্যে অধিকাংশই শিক্ষার্থী ছিলেন বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। শীতলক্ষ্যার দুপাড়ে নিখোঁজের স্বজনরা ভিড় করছেন। তাদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠছে আশপাশের পরিবেশ। উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন নৌপুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আজ দুপুরে শীতলক্ষ্যার কয়লাঘাট এলাকায় একটি কার্গো জাহাজ যাত্রীবাহী লঞ্চকে ধাক্কা দেয়। এরপর কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই লঞ্চটি ডুবে যায়। লঞ্চটিতে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিল। বেশির ভাগই ছিল শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ১৫-২০ জনের মতো সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও বাকিরা নিখোঁজ রয়েছেন।

বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক (নৌ-নিরাপত্তা বিভাগ) বাবু লাল বৈদ্য জানান, একটি জাহাজের ধাক্কায় লঞ্চটি ডুবে গেছে। এখনো অনেকে নিখোঁজ। উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: