বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাদিকা পরভীন পপির বিয়ে নিয়ে অসংখ্যবার বিয়ের গুঞ্জন উঠেছে। তবে এবারের গুঞ্জন শুধু বিয়েতেই সীমাবদ্ধ নেই। বিয়ে নিয়ে বিভিন্ন খবরে প্রকাশ- এক বছর আগে ষাটোর্ধ্ব বিবাহিত এক প্রকৌশলীকে গোপনে বিয়ে করেছেন পপি! তারা রাজধানীর বারিধারায় বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে বসবাস করছেন। তবে এমন খবরে চটেছেন এই নায়িকা। এতদিন এ বিষয়ে তার কোনো মন্তব্য পাওয়া না গেলেও এবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

এতদিন এ বিষয়ে তার কোনো মন্তব্য পাওয়া না-গেলেও এবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। পপি বলেন, ‘শিল্পীরা যেন সরকারি মাল, যার যখন মন চায় যা খুশি লিখে দেন, মন চাইলে বিয়েও দিয়ে দেন। কিন্তু কোনো শিল্পী যখন না-খেয়ে থাকে, তখন কেউ টাকা দেন না, তাকে খাবার দিতেও আসেন না। আমরা সারাজীবনই দেখছি, কিছুসংখ্যক লোক শিল্পীদের এভাবে বিক্রি করেই খায়। সবচেয়ে বড় কথা হলো, যখন দেখি সংবাদমাধ্যম মিথ্যে সংবাদ ছাপছে, তখন আর বিশ্বাসের স্থান থাকে না।’

বিয়ে করা কোনো অপরাধ নয়? এমন প্রশ্নের জবাবে পপি বলেন, ‘হ্যাঁ, বিয়ে করা কোনো অপরাধ নয়। কিন্তু একজনকে যার-তার সঙ্গে বিয়ে দেওয়া তো অপরাধ! এদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা উচিত। দেখি, আমি একটু ঝামেলায় আছি। ঝামেলামুক্ত হয়েই লিগ্যাল অ্যাকশনে যাব।’

পপি দীর্ঘদিন ধরে অন্তরালে রয়েছেন। মুঠোফোন কিংবা ফেসবুকে তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। সম্প্রতি সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘সাহসী যোদ্ধা’ সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন পপি। এছাড়া ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ সিনেমার কাজও শেষ করেছেন এই অভিনেত্রী।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: