সাজ-পোশাকের জন্য ৩ হাজার টাকা ভাতা চান সরকারি কর্মচারীরা

৫০ শতাংশ মহার্ঘ্য ভাতা, নবম বেতন কমিশন গঠন ও টাইম স্কেল-সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালসহ পাঁচ দফা দাবি আদায়ে আল্টিমেটাম দিয়েছে সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ। পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়ন না হলে ঢাকা মহানগরীর সকল দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরের কর্মচারীদের নিয়ে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সংগঠনের নেতারা। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের আন্দোলন সংগ্রামের ৩৪ বছর ও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় এসব দাবি উত্থাপন করা হয়।

বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি সৈয়দ সারোয়ার হোসেন বলেন, সরকারি দপ্তরে দাস প্রথার ন্যায় আউট সোর্সিং নিয়োগ প্রথা বাতিল করে শূন্য পদে নিয়োগ প্রদান করতে হবে। টাইম স্কেল, সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহাল, শতভাগ পেনশন ভাতা প্রদান, নতুন বেতন স্কেল অনুযায়ী পেনশন প্রদান, সচিবালয়ের ন্যায় সমমর্যাদা প্রদান ও পদবী পরিবর্তন, বেতন বৈষম্য নিরসনে ১০টি বেতন স্কেল চালু করতে হবে। সরকারি কর্মচারীদের প্রতি যে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে তা বন্ধ করে তাদের ন্যায়সঙ্গত দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি

তিনি বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে মানসম্মত রেশন প্রদান, মূল বেতনের ২০% ঝুঁকি ভাতা প্রদান, ব্যাংকের ন্যায় কর্মচারীদের গৃহ নির্মাণ বাবদ ঋণ প্রদান, নার্সদের গাড়িচালক ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের মাসিক বেতনের সঙ্গে ৩০০০ টাকা সাজ-পোশাক ভাতা প্রদানের দাবি জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি সৈয়দ সারোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বদরুল আলম। এতে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড মেজবাহ উদ্দীন আহমদ, সংগঠনের মহাসচিব নোমানুজ্জামান আল আজাদ, কামরুল আহসান, বাদল খাঁন, নাইমুল ইসলাম জুয়েল, এম এ আওয়াল প্রমুখ।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

ফেসবুকে আমরাঃ