বঙ্গোপসাগরে ভাসানচরের কাছে এক হাজার ৬০০ টান গম নিয়ে ‘এমভি তামিম’ নামের একটি লাইটারেজ জাহাজ ডুবে গেছে। গতকাল বুধবার (১৮ মে ) দুপুরে ভাসানচর এলাকায় জাহাজটি ডুবে যায়। জাহাজটি স্থানীয় সমতা শিপিং অ্যান্ড লজিস্টিক পরিচালনা করে আসছিল। গমটির আনুমানিক মুল্য ছিলো প্রায় ৭ কোটি টাকা।

বুধবার চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব ওমর ফারুক সন্ধ্যায় লাইটারেজ জাহাজডুবির তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, সাগরে ডুবে থাকা অদৃশ্য কোনো বস্তুর সাথে ধাক্কা খেয়ে এমভি তামিম জাহাজের সামনের হেজ ফেটে যায়। এতে পানি ঢুকে ভারসাম্য হারিয়ে জাহাজটি ডুবতে শুরু করে এবং অল্পক্ষণের মধ্যে পুরোপুরি ডুবে যায়। জাহাজে থাকা ১২ জন নাবিককে উদ্ধার করা হয়েছে।

বন্দর সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে অবস্থানকারী এমভি প্রোফেল গ্রিজ নামের জাহাজ থেকে ঢাকার মেসার্স নবী অটো ফ্লাওয়ার মিলের এক হাজার ৬০০ টন গম বোঝাই করা হয় এমভি তামিম নামের লাইটারেজ জাহাজে। বহির্নোঙর থেকে গম নিয়ে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা সেরে জাহাজটি ঢাকা যাওয়ার পথে ধরে। কিন্তু বুধবার দুপুরে বঙ্গোপসাগরের ভাসানচরের কাছে জাহাজটি ডুবে যায়। ধারণা করা হচ্ছে, ধাক্কা খেয়ে এমভি তামিম জাহাজের সামনের অংশ ফেটে যায়। এতে পানি ঢুকে ভারসাম্য হারিয়ে জাহাজটি ডুবতে শুরু করে এবং অল্পক্ষণের মধ্যে পুরোপুরি ডুবে যায়।

প্রসঙ্গত, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ শুরুর পর থেকেই গম নিয়ে সংকট চলছে। এর মধ্যে ভারত রপ্তানি বন্ধের ঘোষণায় অস্থিরতা আরো বেড়েছে। এই সংকটের মধ্যেই জাহাজটি ডুবল। তা ছাড়া গমগুলো আমদানি করা হয়েছিল ভারত থেকে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: