হজ পালন করতে গিয়ে এবার কেউ করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়নি। শনিবার হজের চতুর্থ দিন জামারাত ব্রিজ থেকে ফেরার পর পর্যন্ত কোনো হাজি করোনায় আক্রান্ত হননি। সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণায়ল জানিয়েছে, হজযাত্রীদের স্বাস্থ্যের অবস্থা সন্তোশজনক এবং হজের কারণে জনস্বাস্থ্যের কোনো সমস্যা হয়নি। হজ্বের তৃতীয় দিন হজযাত্রীদের তাওয়াফ আল-ইফাদের পরে গ্র্যান্ড মসজিদটিকে জীবাণুমুক্ত করা হয়েছিল। এছাড়া মহামারী সংকট চলাকালীন প্রতিদিন ১০বার মসজিদটি পরিস্কার করা হয়েছে।

চলতি বছর হজে অংশগ্রহণকারীদের স্বাস্থ্য পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করেছেন ডা. আমানী আল-সাদি। তিনি বলেন, হজযাত্রীদের আবাসন ত্যাগ করার সময় থেকে দিন শেষে ফিরে না আসা পর্যন্ত তাদের স্বাস্হ্যের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। প্রত্যেক হজযাত্রীর অন্যের সাথে যোগাযোগের সুযোগ সীমিত করা হয়ে ছিল। বাসে যাতায়াতের সময় আসনগুলো পূর্ব নির্ধারিত ছিল। প্রত্যেক আবাসিক কমপ্লেক্সে একটি ক্লিনিক ছিল, যেখানে চিকিতসকরা হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেছিলেন এবং প্রয়োজনীয ওষুধ সরবরাহ করেছিলেন। এই বছর হজ পালনের সুযোগ পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ছিলেন ইন্দোনেশিয়ার ফরিদা।

তিনি বলেন, হজের জন্য নির্বাচিত হওয়াটাই ‘অবিশ্বাস্য এবং অতুলনীয়’ এক ব্যাপার। আজীবন সন্তুষ্টি ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের মাধ্যমে আমার দায়িত্ব পালন করে যাব। তিনি বলেন, এটা ছিল আমার জন্য আল্লাহর পক্ষ থেকে আশীর্বাদ, আর অবশ্যই এরকম সুন্দর একটি আয়োজনের জন্য সৌদি আরবকে ধন্যবাদ দিতে হবে। কারণ এটি ছিল খুব সুসংহত।

সূত্র: আরব নিউজ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: