অন্তরঙ্গ মুহুর্তে যে কাজগুলো কখনই করবেন না

ডেস্ক রিপোর্টঃ দাম্পত্য জীবন অত্যন্ত জটিল একটি ক্ষেত্র। পরিবারের অজস্র দায়িত্ব সমাধার পাশাপাশি এর মাধ্যমেই আপনাকে অর্জন করতে হবে শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তি। নইলে পরিবার গঠনের মূল উদ্দেশ্যই ব্যাহত হতে পারে। সুতরাং, সঙ্গীকে ধরে রাখা, তার সাথে রোম্যান্টিক সম্পর্ক গড়ে তোলা বা যৌন জীবনকে আরো আকর্ষণীয় করার কোনো বিকল্প নেই।

বিশেষ করে, একান্ত অন্তরঙ্গ মহুর্তগুলোকে করে তুলতে হবে আরো সুন্দর ও সার্থক। অজ্ঞতার দরুন আমরা অনেকেই একাজে প্রচুর ভুল করে থাকি। চলুন নেয়া যাক, সেই নেতিবাচক বিষয়গুলো-যা অন্তরঙ্গ মুহুর্তে কখনই করা উচিত নয়।

১.পরিকল্পনা ছাড়া অগ্রসর হবেন না: সেই মুহুর্তটাকে সুন্দর করার জন্য যা যা করা উচিত, সেগুলো আগে থেকেই নিজের ভেতরে গুছিয়ে রাখুন। চূড়ান্ত ফ্যান্টাসিটাকে জমানোর জন্য পরিকল্পনাগুলো ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করতে থাকুন। এতে আরো আনন্দঘন হবে পারস্পরিক সম্পর্ক।

২.কর্মজগতের ভাবনাকে বিছানায় টেনে আনবেন না: অনেকেই কাজ নিয়ে এতো বেশি উন্মাদনায় ভোগেন যে, অফিস বা কর্মজগতের বাইরেও কেবল কাজ নিয়েই ভাবেন। এতে জীবনের স্বাভাবিকতা বিনষ্ট হয়। তাই বিছানায় অন্তরঙ্গ সময়ে আপনার অফিস বা কর্মজগতের ভাবনাগুলোকে দূরে সরিয়ে রাখুন। মনোঃসংযোগ স্থির করুন আপনার সঙ্গীর প্রতি।

৩.সঙ্গীর সমালোচনা করবেন না: এসময় ভুলেও আপনার জীবনসঙ্গীর সমালোচনা করবেন না। যদি তার অংশগ্রহনে কোনো ভুল-ত্রুটি পেয়ে যান সেগুলো ওভারলুক করুন। তাকে উৎসাহ দিন এবং পজেটিভ থাকুন। পরে সময় ও পরিবেশ বুঝে তাকে সংশোধন করার জন্য কোমলভাবে বোঝাতে পারেন।

৪.অর্গাজমকে অবহেলা করবেন না একটুও: যৌনতার পূর্ণ আস্বাদ পেতে অর্গাজম বা মৈথুনের গুরুত্ব অপরিসীম। সরাসরি ঝাঁপিয়ে পড়া কোনো কাজের কথা নয়। ধীরে ধীরে আন্তরিক অর্গাজম দিয়ে সঙ্গীকে উষ্ণতার পরশ দিতে থাকুন। এতে আনন্দ ও পুলক দীর্ঘায়িত হবে।

৫.পুরনো সম্পর্কের স্মৃতি জের টানবেন না ভুলেও: বিগত জীবনের সম্পর্ক হয়তো আপনাকে তাড়িয়ে বেড়াতে পারে। তবে তার জের টেনে আনবেননা বর্তমান সম্পর্কে। সাবেক সম্পর্কের সাথে বর্তমানের কোনো তুলনাও করতে যাবেন না কখনও। আর অন্তরঙ্গ সময়ে তো একেবারেই না। এটা আপনার জীবনসঙ্গীকে চিরতরেই আপনার থেকে দূরে সরিয়ে দিতে পারে। তাই এ বিষয়ে সতর্ক থাকবেন সবসময়।

৬. অন্যমনস্ক হবেন না একবারও: পুরো প্রক্রিয়া ভালোভাবে শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত অন্যমনস্ক হওয়া যাবে না আপনার। সচেতনভাবে মন-প্রাণ উজাড় করে উপভোগ করবেন আনন্দের আস্বাদ। আর যদি এর অন্যথা হয়, তবে আপনার সঙ্গী আপনাকে ভুল বুঝতে পারেন। তিনি হয়তো ভাববেন তার গুরুত্ব বা আবেদন কমে গেছে আপনার কাছে। সুতরাং এ বিষয়টিকেও না করুন সচেতনভাবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ