বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের যৌথ জেলা প্রশাসক সম্মেলনে যোগ দিতে ৪জেলার ডিসিসহ ৩০ সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ভারতে গেছে। কুমিল্লা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. আবুল ফজল মীরের নেতৃত্বে মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ২টায় আখাউড়া স্থলবন্দর সীমান্তপথে দলটি ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় পৌঁছায়।

এ সময় আখাউড়া-আগরতলা স্থলবন্দর সীমান্তের নোম্যান্সল্যান্ডে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলকে ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ফুলেল অভ্যর্থনা জানানো হয়।

সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশের পূর্ব সীমান্তবর্তী চার জেলা ও ত্রিপুরা রাজ্যের ৪ জেলার প্রশাসকদের ৩ দিনব্যাপী বৈঠক মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে শুরু হয়েছে। আগরতলায় ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের অতিথিশালায় অনুষ্ঠেয় বৈঠকে সীমান্তে অস্ত্র ও চোরাচালান রোধ, আন্তঃসীমান্ত অপরাধ, সীমান্তে নির্যাতন বন্ধ, দুই দেশের সম্প্রীতি বজায় রাখা এবং সীমান্তে বসবাসকারী জনগণের নিরাপত্তা ও অধিকার রক্ষাসহ সীমান্ত পিলার তৈরি ও মেরামত এবং রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ঠেলে দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হবে। এছাড়াও ত্রিপুরার আগরতলা থেকে আখাউড়া সীমান্ত পথে বাংলাদেশে বয়ে আসা কালন্দী খালের দূষিত কালো পানি বন্ধ করা এবং সম্প্রতি ভারতীয় বিএসএফের বাধার মুখে বন্ধ থাকা আখাউড়া স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন ভবন নির্মাণ কাজ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হবে। ৬ ফেব্রুয়ারি এসব বিষয়ে যৌথ সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। পরদিন ৭ জানুয়ারি সকালে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলের কর্মকর্তারা এ পথেই দেশে ফিরে আসবেন বলে কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের প্রধান কুমিল্লা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. আবুল ফজল মীর জানিয়েছেন, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা রাজ্য অতিথিশালায় ৪ জানুয়ারি থেকে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী দু’দেশের ডিসিদের যৌথ সীমান্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এতে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক ছাড়াও পুলিশ প্রশাসন, বিজিবি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও ভূমি জরিপ অধিদফতরের কর্মকর্তাসহ ৩০ সদস্যের প্রতিনিধি দলে অংশ নিচ্ছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: