শনিবার রাত ১১ টায় উপজেলার মারুকা ইউনিয়নের চক্রতলা গ্রামের আলেক খান নামের এক ব্যক্তির করোনা উপসর্গ পাওয়ায় আশপাশের জনগোষ্ঠীকে নিরাপত্তার স্বার্থে আলেক খানের বাড়িটি লকডাউন করেছে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল ইসলাম খান।

বিজ্ঞাপন

তবে নির্ভরযোগ্য সূ্ত্রে জানা যায়,” আলেক খানের নমুনা সংগ্রহ করে আগামীকাল সকালে ঢাকার মহাখালী আইইডিসিআরে পাঠানো হবে।
আইইডিসিআরের ফলাফল হাতে না আশা পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হন নি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুল ইসলাম খান।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শাহিনুর আলম সুমন বলেন,” আলেক খানের করোনা উপসর্গের প্রাথমিক লক্ষণ হাচি,কাশি, ঠান্ডা, শ্বাসকষ্ট ও গলা ব্যথা আছে।আমাদের এখানে করোনা শনাক্তের কিট না থাকায় আমরা আগামিকাল এ রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার আইইডিসিআরে পাঠাবো অতঃপর বিস্তারিত জানা যাবে। তিনি আরো জানান,তিতাস মজিদপুরের রাব্বি নামেরও একটি রোগী গৌরীপুর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে আমরা তার নমুনাও একসাথে আগামীকাল ঢাকায় পাঠাবো। ঢাকার আইইডিসিআর এর ফলাফল আসার জানতে পারবো আসলে তারা করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে কী না।”

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: