নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কুমিল্লার কৃতি সন্তান ও কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের সাবেক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক কায়সার আহমেদ। আর মাদ্রাসা বোর্ডের বর্তমান চেয়ারম্যান এ কে এম ছায়েফ উল্লাহকে প্রেষণ প্রত্যাহারক্রমে ওএসডি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী ১৮ জুন মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে অবমুক্ত হবেন তিনি। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত পৃথক আদেশ জারি করা হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন ২০২১ ও ভিশন ২০৪১ এর বাস্তবায়নকারী নিবেদিত প্রাণ সৈনিক স্পষ্টবাদী পরিছন্ন ব্যক্তিত্ব কায়সার আহমেদ বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হওয়ার খবর অনলাইন মিডিয়া,ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমে জানাজানি হলে কুমিল্লার শিক্ষা পরিবার,সুধী মহল ও তার শুভাকাঙ্খিরা আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ সহ বিপুল অভিনন্দন জানান।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লার কৃতিসন্তান অংকন স্থান পেলেন অনুর্ধ্ব-২৩ দলে

জানা যায়, ১৪ তম বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের কর্মকর্তা কায়সার আহমেদ ১৯৯৩ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে দর্শন বিভাগের প্রভাষক পদে যোগদানের মধ্যে দিয়ে কর্ম জীবন শুরু করেন। পর্যায়ক্রমে তিনি দেবিদ্বার এস এ সুজাত আলী সরকারি কলেজ,কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ,নোয়াখালি কবিরহাট সরকারি কলেজ,লাকসাম নবাব ফয়জুন্নেছা কলেজে শিক্ষকতা করেন। তিনি ২০০৯ সালের ১৭ মার্চ থেকে ৬ মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত প্রায় ১০ বছর দক্ষতা ও সুনামের সাথে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের উপ- কলেজ পরিদর্শক ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি এসময় পাবলিক পরীক্ষায় নকল বিরোধী অভিযান জোরদার ও শিক্ষাবোর্ডে দূনীতি বিরোধী পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে ব্যাপকভাবে আলোচিত হন। পরে তিনি অধ্যাপক পদে পদোন্নতিতে বদলী হয়ে নবীনগর সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের বিভাগীয় পদে যোগ দেন। সর্বশেষ তিনি চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেওয়া হয়।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লার কৃতিসন্তান অংকন স্থান পেলেন অনুর্ধ্ব-২৩ দলে

কুমিল্লা জেলা বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) সমিতির সভাপতি অধ্যাপক কায়সার আহমেদ কুমিল্লা জেলার আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের সৈয়দপুর-বেজবাড়ী গ্রামের বিমান বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মৃত আলী আহাম্মেদ ও ইসতাহেরা বেগমের পুত্র । ৩ ভাই ও ৬ বোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ। একপুত্র ও এক কণ্যা সন্তানের জনক অধ্যাপক কায়সার আহমেদ স্ত্রী ফারিজা হকও শিক্ষকতা পেশায় যুক্ত। তিনি বরুড়ার আগানগর ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক পদে কর্মরত রয়েছেন।

এদিকে অধ্যাপক কায়সার আহমেদ বাংলাদেশ মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান হওয়ায় তার শুভাকাঙ্খিরা ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপুল অভিনন্দন জানিয়েছেন। কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম ফেসবুকে এক স্ট্যটাসে জানান, “আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভ কামনা মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান পদে পদায়ন পাওয়া প্রিয় ব্যক্তিত্ব প্রফেসর কায়সার আহমেদ স্যারকে। আপনি কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক থাকাকালীন আপনার সততা, প্রভাবশালীদের অনৈতিক কাজকে না বলার কঠোর দৃঢ়তা, মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষে মানসম্মত পরীক্ষা ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা, বোর্ডকে দূর্নীতি মুক্ত করা, পরীক্ষক, প্রধান পরীক্ষক নিয়োগ ডিজিটাল করা ও তাঁদের সম্মানী অনলাইনে প্রদান কার্যকর করার পদক্ষেপে নানামুখী ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেও আপনি কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডকে বহুদূর এগিয়ে দিয়ে গেছেন। আপনাকে মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী আপনার সততা ও দক্ষতাকেই মূল্যায়ন করেছেন। আপনার গতিশীল নেতৃত্বে দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাক নতুন কর্মস্থল মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড এই কামনা করছি।”