কুমিল্লায় অস্থায়ীভাবে নির্মিত কোভিড-১৯ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পজিটিভ হয়ে দুজন এবং উপসর্গ নিয়ে সাতজন মারা গেছেন। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে পুরুষ ৫ জন ও নারী ৪ জন। তাঁরা প্রত্যেকেই আইসোলেশন ও করোনাভাইরাস ওয়ার্ডে মারা গেছেন।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত বা উপসর্গ রয়েছে এমন ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অভ্যন্তরে অস্থায়ীভাবে কোভিড-১৯ হাসপাতালটি স্থাপন করা হয়েছে।

হাসপাতালের পরিচালক মো. মুজিবুর রহমান আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রথম আলোকে ৯ জনের মৃত্যুর তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাস পজিটিভ হয়ে আজ সকাল সাড়ে ছয়টায় কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ৬২ বছরের এক নারী ও গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ২টা ২০ মিনিটে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার ৯০ বছরের এক বৃদ্ধ করোনাভাইরাস ওয়ার্ডে মারা গেছেন।

আর করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আজ সকাল ছয়টায় চাঁদপুরের মতলব উপজেলার ৪০ বছরের এক পুরুষ, গতকাল রাতে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার ৩৮ বছরের এক পুরুষ, কুমিল্লা নগরের কান্দিরপাড় এলাকার ৩৮ বছরের এক পুরুষ, কুমিল্লা শহরের ৬৫ বছরের এক বৃদ্ধ ও ৬০ বছর বয়সী দুই নারী মারা গেছেন।

হাসপাতালের পরিচালক মো. মুজিবুর রহমান বলেন, এখন হাসপাতালে ১১৬ জন রোগী ভর্তি আছেন। এর মধ্যে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ১০ জন, করোনাভাইরাস ওয়ার্ডে ৬৩ জন ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৪৩ জন রয়েছেন।

সূত্রঃ প্রথমআলো

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: