ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দি টোল প্লাজায় অভিযান চালিয়ে বিশ হাজার পিস ইয়াবাসহ ৩ জনকে আটক করা হয়। কুমিল্লা জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ অভিযানটি পরিচালনা করে। আজ বুধবার সকাল ১০ টায় সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ সৈয়দ নুরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম এ তথ্য উপস্থাপন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ দাউদকান্দি টোল প্লাজায় অবস্থান নেয়। জেলা গোয়েন্দা বিভাগের অভিযানটির নেতৃত্বে দেন পুলিশ পরিদর্শক ইখতিয়ার উদ্দিন। টোল প্লাজায় অবস্থানকালে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা একটি সাদা রংয়ের (চ-১৩-৭৯৬১) নোয়া মাইক্রো বাসকে থামানো হয়। এ সময় মাইক্রোবাসে তল্লাসী চালানো হয়। মাইক্রো বাসের ভেতর বিশেষ কৌশলে রাখা একটি কার্টুনে ১৫ হাজার অপর একটি শপিং ব্যাগে স্কচ টেপ মোড়ানো আরো ৫ হাজার মিলিয়ে মোট ২০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ইয়াবার উদ্ধারের পাশাপাশি ৩ জনকে আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলেন নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার আবুল কালামের ছেলে মোঃ ইমাম হোসেন ওরফে আজগর তার স্ত্রী মোসাঃ সনিয়া, ইমাম হোসেনের সহযোগী লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার শ্রীরামপুরের মৃত নেসার আহম্মেদের ছেলে মোঃ মাহবুব আলম (২৮)।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মাদক ব্যবসায়ী ইমাম হোসেন ইয়াবা পাচারের জন্য তার স্ত্রী, সন্তান ও শাশুড়িকে ব্যবহার করে যেন পরিবার পরিজনের কারনে পুলিশের সন্দেহ না হয়। তবে স্পষ্ট তথ্য উপাত্ত থাকার কারনে পুলিশ মাইক্রোবাসে থেকে ইয়াবাগুলো উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মোঃ আজিম-উল- আহসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শাহরিয়ার মোহাম্মদ মিয়াজী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভীর সালেহীন ইমনসহ জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: