ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার বুড়িচংয়ে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপ। বিএনপিবিহীন এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্ত অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম খান এবং দলের মনোনয়নবঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী আখলাক হায়দারের সমর্থকরা এখন মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছেন। যে কোনো মুহূর্তে এ দুটি গ্রুপের মাঝে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে বিবদমান দুটি গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এদিকে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আবুল হাশেম খানের সমর্থনে উপজেলার কোথাও মিছিল বের করা হলে পরক্ষণেই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী আখলাক হায়দারের সমর্থকরাও মিছিল বের করছেন। এ নিয়ে গত রোববার দুপুরে দুটি গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষ হয়েছে। দুটি গ্রুপের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে এলাকায় উত্তেজনা এবং সাধারণ লোকজনের মাঝে চরম ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

জানা যায়, আসছে ৩১ মার্চ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবুল হাশেম খান এবং যুগ্ম আহ্বায়ক আখলাক হায়দার। কিন্তু দলীয় মনোনয়ন লাভ করেন আবুল হাশেম খান। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেন আখলাক হায়দার। এ নিয়ে এ উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের অধিকাংশ নেতাকর্মী দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, দলের শক্তিশালী বেশ কিছু নেতাকর্মী এবং ইউপি চেয়ারম্যানসহ জনপ্রতিনিধি আখলাক হায়দারের পক্ষে অবস্থান নেয়ায় এ নির্বাচনের মাঠে তার প্রভাব অনেকটাই বেড়ে গেছে। এদিকে দলের মনোনয়নপ্রাপ্ত আবুল হাশেম খানও মূল ধারার নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। এ নির্বাচন নিয়ে এ দুটি গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। এতে স্থানীয় লোকজন ও প্রশাসন অনেকটা বেকায়দায় পড়েছেন।

গত রোববার দুপুরে নৌকার সমর্থকরা উপজেলা সদরে মিছিল বের করে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ করা হয়। এ সময় দুই গ্রুপের পাঁচজন আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পরে সোমবার উপজেলার কোরপাই এলাকায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর এক সমর্থককে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকরা কুপিয়ে জখম করেন বলে অভিযোগ করা হয়। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে দুটি গ্রুপের মাঝে উত্তেজনা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবুল হাশেম খান বলেন, দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থরা বিশৃঙ্খলা করে নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছে।

বিদ্রোহী প্রার্থী আখলাক হায়দার বলেন, নৌকার সমর্থকরা আমার লোকজনের ওপর হামলা চালাচ্ছে।

সূত্রঃ যুগান্তর

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ