ডেস্ক রিপোর্টঃ হটলাইনে অভিযোগ পাওয়ার পর কুমিল্লা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে বিদেশগামী শ্রমিকদের বেসরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বাধ্য করার প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রোববার এই অভিযান চালানো হয় বলে দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “ওই সিভিল সার্জন অফিসে বিদেশ গমনেচ্ছু শ্রমিকদের স্বাস্থ্যগত ছাড়পত্র দিতে জনপ্রতি অবৈধভাবে আট-নয় হাজার টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে দুদক হটলাইনে একটি অভিযোগ আসে সম্প্রতি।”

অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের সহকারী পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল অভিযান চালায় জানিয়ে প্রণব বলেন, “সিভিল সার্জন অফিসে আগত শ্রমিকদের স্বাস্থ্যসনদ পাওয়ার জন্য জন্য বেশ কিছু টেস্ট করানো বাধ্যতামূলক, কিন্তু শ্রমিকরা বেসরকারি হাসপাতাল থেকে টেস্ট করাতে বাধ্য হচ্ছেন।

“এতে নিম্মআয়ের শ্রমজীবী মানুষ দুর্নীতি ও হয়রানির শিকার হচ্ছেন।”
এই অভিযানের সমন্বয়কারী দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “বিদেশগামী শ্রমিক-কর্মচারীদের স্বাস্থ্যসনদ প্রদানে দুর্নীতি বন্ধে এ অভিযান চালানো হয়েছে, এ নিয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে।”

অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া দুদক কর্মকর্তা আবু হেনা আশিকুর রহমান বলেন, “অভিযানে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, সিভিল সার্জন অফিস থেকে বিদেশ গমনেচ্ছু শ্রমিকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য শহরের বিশেষ কয়েকটি মেডিকেলে যেতে বাধ্য করা হচ্ছে। সিভিল সার্জন তার দপ্তরের এসব দুর্নীতি এক সপ্তাহের মধ্যে বন্ধ করবেন বলে অঙ্গীকার করেছেন।”

পাশাপাশি সিভিল সার্জন অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাসও দিয়েছেন বলে আশিকুর জানান।

এছাড়াও সিভিল সার্জন তার দপ্তরে দুর্নীতিবিরোধী প্রচারের নিশ্চয়তা দিয়েছেন।

সূত্রঃ বিডিনিউজ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: