ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের প্রধান সড়কে অন্তত ৭টি বিদ্যুতের খুঁটি রয়েছে। এতে বিড়ম্বনা পোহাচ্ছে পথচারীরা।

উপজেলার প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র চান্দিনা বাজার অত্যন্ত ব্যস্ততম এলাকা। ছোট বড় প্রায় ১৫টি ব্যাংকের শাখা রয়েছে এখানে। এছাড়াও স্কুল, কলেজ, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, হাসপাতাল, ক্লিনিক, রেস্টুরেন্ট থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। শনি ও মঙ্গলবার হাটের দিন থাকলেও সপ্তাহের সাত দিনই ব্যস্ত থাকে উপজেলা সদরেরর এই বাজারটি। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রতিদিন প্রায় ১০ হাজার লোকের সমাগম ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, ব্যস্ততম এই বাণিজ্যিক এলাকায় জনগণের সুবিধার জন্য সম্প্রতি রাস্তার দু’পাশে পয়ঃনিষ্কাশন নালাসহ রাস্তা সম্প্রসারণ নির্মাণ কাজ করেছে চান্দিনা পৌরসভা। রাস্তা নির্মাণ কাজ প্রায় ৮৫ শতাংশ শেষ হয়েছে। এতে করে এক কিলোমিটার রাস্তার সীমানায় উপর বিচ্ছিন্নভাবে রয়ে গেছে পল্লী বিদ্যুতের ৭টি খুঁটি। চান্দিনা থানার পালকি সিনেমা থেকে উপজেলার সরকারি হাসপাতাল পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানেই দেখা যায় খুঁটিগুলো। যা রাস্তার উপর ঠাঁয় দাঁড়িয়ে আছে।

অপরদিকে, পথচারীদের স্বাচ্ছন্দে চলাচলের জন্য ফুটপাত নির্মাণ করা হলেও তা হকারদের দখলে চলে গেছে। রাস্তার উপর এসব খুঁটি অপসারণ না করায় চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে পথচারীদের।চান্দিনা পৌরসভার মেয়র মো.মফিজুল ইসলাম বলেন, সুন্দর রাস্তা করা হয়েছে জনসাধারণের জন্য। জনগণের স্বার্থে কলেজ মোড়ের ২টি খুঁটি অপসারণের প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। বাকিগুলো পর্যায়ক্রমে অপসারণে পল্লী বিদ্যুত কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কুমিল্লা পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, রাস্তা সম্প্রসারণের আগে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ যোগাযোগ করেননি। আমরা বিষয়টি পরে জেনেছি। এ বিষয়ের আবেদন আমাদের কাছে পৌঁছেছে। দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: