দলের কোন বড় পদ নেই। সাধারণ সদস্য তিনি। দীর্ঘ সময় ধরে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। দলের জন্য সর্বদা নিয়োজিত থাকার জন্যই আসন্ন কুমিল্লা চান্দিনা পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. শওকত হোসনে ভূঁইয়াকে।

গত ৫ ডিসেম্বর উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রে পাঁচ জনের তালিকা পাঠানো হয়। তালিকাভুক্তরা হলেন বর্তমান মেয়র মফিজুল ইসলাম, চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল জলিল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী গোলাম দস্তগির পাপন, পৌর কৃষকলীগ সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য শওকত হোসনে ভূঁইয়া।

পরে যাচাই বাছাই শেষে ১৮ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের নীতি নির্ধারকরা চান্দিনা উপজলো আওয়ামী লীগের সদস্য শওকত হোসনে ভূঁইয়াকে পৌরসভার মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেন।

বিষয়টি নিয়ে কুমিল্লা ৭ নম্বর চান্দিনা আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফ বলেন, ‘জেলা ও উপজেলা থেকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে যাদের নাম পাঠানো হয়েছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের সবার বিষয়ে অবগত। দলে কার কি পদ সেটা বড় কথা না, কার ইমেজ ভালো তাই বিবেচ্য। শওকত হোসনে ভূঁইয়া আওয়ামী লীগের কর্মী এটাই তার বড় পরচিয়।’

এ দিকে পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য মনোনীত হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন শওকত হোসনে ভূঁইয়া।

শুক্রবার স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে মতবিনিময়ে শওকত হোসেন জানান, পৌরবাসী নানান সমস্যায় ভুগছেন। তার মধ্যে মাদক একটি বড় সমস্যা। মাদককে শূন্য সহনশীলতা দেখাতে নিয়ে তিনি বদ্ধপরিকর। পাশাপাশি পৌরসভার সেবাকে তিনি সহজলভ্য করতে চান।

পৌরবাসীর ভোগান্তি কমাতে যা করতে হয় সবই করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন শওকত।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সাকিব মাহমুদ ভূঁইয়া তানিন, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা তুহিন ভূঁইয়াসহ আর অনেকে।

আগামী ১৬ জানুয়ারি চান্দিনা পৌরসভার নির্বাচন হবে। প্রথমবারের মতো এখানে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হবে। একদিকে আওয়ামী লীগের নতুন প্রার্থী অন্যদিকে নতুন পদ্ধতিতে ভোট; তাই এবার চান্দিনা পৌরসভার নির্বাচনটি অন্য মাত্রা যোগ করেছে পৌরবাসীর কাছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: