ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা টু সিলেট মহাসড়কে দেবীদ্বার পৌর মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে আজ শুক্রবার সকাল১১টায় উপজেলার ৯নং(উত্তর)গুনাইঘর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ সভাপতি দেবীদ্বার সুজাত আলী সরকারী কলেজে’র সাবেক জিএস মুকবুল হোসেন মুকুলকে হত্যার উদ্দেশ্যে বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করা হয়।ঘটনাটি ঘটে বুধবার দিবাগত রাত অনুমান ১টায় উপজেলার গুনইঘর উত্তর ইউনিয়ন’র গুনাইঘর গ্রামে প্রয়াত শিল্পী কালিপদ বাবুর বাড়ির সামনে।

ওই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার জের ধরে আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে গুনাইঘর ইউনিয়নর আওয়ামীলীগ এর আয়োজনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে অংশ গ্রহন করেন উপজেলার আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীগ নেতা মোঃনজরুল ইসলাম সরকার, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ভিপি বাবুল হোসেন (রাজু) উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক জিএস মান্নান মোল্লা, কেন্দ্রীয় ছাত্র লীগের সদস্য ও প্রভাষক সাইফুল ইসলাম শামীম, গুনাইঘর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল হাসান রাসেল, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোঃ সাদ্দাম হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা ইকবাল হোসেন রুবেল।ওই সময় মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ,যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দগন।

ওই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জিএস মোকবল হোসেন মুকুল বাদী হয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান খোরশেদ আলমের ছেলে আবদুল্লাহ আল মামুন ও খোয়াজ আলীর পুত্র নায়েব আলীসহ আরো অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি হত্যার চেষ্টা মামলা দায়ের করেন।

ঘটনা বিষয়ে আহত জিএস মোঃ মুকবল হোসেন মুকুল বলেন, আমি আমাদের ইউনিয়ন আ’লীগের কাউন্সিল অধিবেশন সংক্রান্তে আলোচনা শেষে মোটর সাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে গুনাইঘর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃখোরশেদ আলমের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন’র নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একদল সন্ত্রসী আমার উপর হামলা করে।

এ ব্যাপারে দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)জহিরুল আনোয়ার জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে।