করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে অসাধু ব্যবসায়ীদের দ্রব্যমূল্যে উর্ধ্বগতি রোধে রবিবার দুপুরে কুমিল্লা সদর দক্ষিণের পদুয়ার বাজারে সদর দক্ষিণ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মো: নজরুল ইসলাম পিপিএম এর নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং করে সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ। জনস্বার্থে এ মনিটরিং অব্যাহত থাকবে।

সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা সদর দক্ষিণের পদুয়ার বাজার, বিশ^রোড চৌরাস্তা, সুয়াগাজী বাজার, বিজয়পুর বাজারসহ আশপাশের এলাকার বেশির ভাগ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে নিত্য পণ্যের গায়ে মূল্য তালিকা নেই। যার ফলে দোকানীদের ইচ্ছে মতো পেয়াজ, চাল, ডাল, তেল সহ বিভিন্ন পণ্য উর্ধ্বমূল্যে বিক্রি করছে। এতে সাধারণ মানুষ অসাধু ব্যবসায়ীদের কাছে জিম্মি হয়ে আছে। কুমিল্লার পদুয়ার বাজারে ব্যবসায়ীরা ইচ্ছে মতো চাল, ডাল, তেল, চিনি, পেয়াজ, রসুন সহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপন্য প্রায় দ্বিগুন মূল্যে বিক্রি করছে। এতে ভোক্তারা নিরুপায় হয়ে দ্বিগুন মূল্যেই নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপন্য ক্রয় করতে বাধ্য হচ্ছে। খবর পেয়ে রবিবার দুপুরে কুমিল্লা সদর দক্ষিণের পদুয়ার বাজারে সদর দক্ষিণ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মো: নজরুল ইসলাম পিপিএম এর নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং করেন সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ। এ সময় এস.আই খাদেমুল বাহার সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: নজরুল ইসলাম পিপিএম জানান, জনস্বার্থে পুলিশের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। এদিকে বাজার নিয়ন্ত্রণে ওসি নজরুলের এ অভিযানকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণের বাসিন্দা ও কুমিল্লা বিশ^বিদ্যালয়ের সেকশন অফিসার মো: এনায়েত হোসেন নাজিম বলেন, ওসি নজরুলের বাজার মনিটরিংটি একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। বর্তমান সরকার বাজার নিয়ন্ত্রনে আন্তরিক পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। প্রশাসন আন্তরিকতার সাথে বাজার মনিটরিং অব্যাহত রাখলে অসাধু ব্যবসায়ীদের হাত থেকে সাধারণ মানুষ রক্ষা পাবে।

সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে কুমিল্লা ন্যাশনাল ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক রবিউল আউয়াল তুহিন বলেন, সরকার কর্তৃক প্রশাসনের বাজার মনিটরিংয়ে ধারাবাহিকতা থাকা দরকার। এতে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: