কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের ছু’রিকাঘাতে সাবেক ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন মোল্লা আ’হত হয়েছে। রবিবার সকালে উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন মির্জাপুর বাজারের মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আ’হত ইকবাল হোসেন মোল্লা ওরফে রেজাউল (৩৫) বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সাবেক যুবলীগের সভাপতি ও কোদালকাটা গ্রামের ইদ্রিস মোল্লার ছেলে। এ ঘটনায় বাঙ্গরা বাজার থানায় একটি মামলা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় আওয়ামীলীগের একটি অফিসে আ’গুন লাগিয়ে দেয়। পরে এ ঘটনায় ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করেন। তখন থেকেই ওই ইউপি সদস্য ইকবাল হোসেনকে নানা ভাবে ক্ষতি করার চেষ্টা করে আসছিলো। কিছুদিন আগে ইকবাল হোসেন স্থানীয় লোকজনের কাছে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের নানা অপকর্ম তুলে ধরায় গত রবিবার সকাল ৮টার দিকে ইকবাল হোসেন স্থানীয় মির্জাপুর বাজার থেকে বাড়ী যাওয়ার পথে কোদালকাটা ব্রিজের উপর অটো রিক্সা থামিয়ে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম ও তার সহযোগী নিজাম উদ্দিন মোল্লাসহ কয়েকজন লোক ইকবাল হোসেনের ওপর আক্রমন করে।

এসময় ইউপি সদস্য প্রাণে মে’রে ফেলার জন্য ছুরি দিয়ে ইকবালের পেটে সজোরে আঘাত করে, বাঁচার জন্য ইকবাল সরে গেলে তার ডান হাত কেটে যায়। পরে তার চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন আসলে ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম ও তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। আ’হত ইকবালকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

এবিষয়ে বাঙ্গরা বাজার থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, অভিযোগ পেয়ে থানার একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়েছে। তবে ওই ইউপি সদস্যকে পাওয়া যায়নি। আসামী গ্রে’ফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।