বাবার হঠাৎ বুক ব্যথা শুরু হলে নগরীর একের পর এক হাসপাতাল ঘুরে ভর্তি করাতে না পেরে বাসায় ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয়। পরে রোববার (২৮ জুন) রাত ৩টায় বাসায়ই মারা যান বাবা। এমন ঘটনা ঘটেছে কুমিল্লা নগরীতে। তার নাম আবদুল মমিন।

বিনা চিকিৎসায় এ মৃত্যু কিছুতেই মানতে পারছেন না সন্তান ও স্বজনরা। কবরস্থান থেকে আনা যাচ্ছিল না একমাত্র ছেলে মাহিকে। শুধু কাঁদছে সে। তার কান্নায় অনেকেই চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।

রোববার বাদ জোহর আশোকতলা খান বাড়ি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে জানাযা শেষে বাগিচা কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে আবদুল মমিনকে। তিনি স্টেশন রোড এলাকার বাসিন্দা ও পেশায় একজন ব্যবসায়ী ছিলেন।

রেলস্টেশন জামে মসজিদের ইমাম বলেন, বর্তমানে আমরা এমন সময় পার করছি বাবার জানাযায় ছেলে যাচ্ছে না, আবার ছেলের জানাযায় বাবা অংশ নিতে পারছেন না। এমন ক্রান্তিকালে আবদুল মমিনের মৃত্যুর খবরে আমার কষ্ট হচ্ছিল। তিনি নিঃসন্দেহে একজন ভালো মানুষ ছিলেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: