বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার পাঁচওরা গ্রামের এক বাক প্রতিবন্ধী তিন সন্তানের জনক মনির হোসেনের নিখোঁজের দুই মাসে ও উদ্ধার হয়নি। সোমবার কুমিল্লার আদালতে একই গ্রামের আবুল কালাম সহ ৩-৪ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে অবসর সেনাসদস্য আব্দুল আলীম বাদী হয়ে।

মামলার বিবরনে জানা যায় জেলার বড়িচং উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের পাঁচওরা গ্রামের মৃত জুনাব আলীর বাক প্রতিবন্ধী তিন সন্তানের জনক মনির হোসেন (৩৮)এর নিখোঁজের দুই মাসে ও তার সন্ধান মেলেনি। পরিবারের একমাত্র উপার্জন ক্ষম ব্যাক্তি মনির হোসেন এর নিখোঁজ এর পর থেকে তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

মামলার বাদী সেনাসদস্য মোঃ আব্দুল আলীম অভিযোগ করে বলেন যে,তার ছোট ভাই বাক প্রতিবন্ধী মনির হোসেন এলাকায় দিনমজুরী করে সংসার চালাত। ঘটনার দিন গত ১৮ মার্চ একই গ্রাম পাঁচওরায় আব্দুল কাদের ভূইয়া’র বিল্ডিংয়ের রাজ জোগালীর কাজ করার সময় একই গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে মাদক ব্যবসায়ী মনির হোসেন কে ডেকে রাস্তার পাশে এনে তার সাথে ইশারায় কথা বার্তা বলে। এর পর ওই দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মনির হোসেন বাড়ী থেকে বের হয়ে আর রাতে ফিরে আসেনি। এই ঘটনায় ২১ মার্চ বুড়িচং থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করা হয়। ডাইরি নং ১১৯৭।

বাদী আব্দুল আলীম আরও জানায় জিডি করার কিছু দিন পর জানতে পারেন একই গ্রামের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আবুল কালাম তার সাথে আরও ৩-৪ জন ১৮ মার্চ দুপুরে কাদের ভূইয়ার বিল্ডিংয়ের কাজ করার সময় বিভিন্ন ভাবে মনির হোসেন এর সাথে কথা বলছে। বাদী আব্দুল আলীম বিষয়টি নিয়ে মাদক ব্যবসায়ী আবুল কালাম কে জিজ্ঞেস করলে সে উল্টো সবাই কে ভয়ভীতি ধমকী দেয়।

বাদী আব্দুল আলীম আরও অভিযোগ করে বলেন যে মাদক ব্যবসায়ী আবুল কালাম তার বাক প্রতিবন্ধী ছোট ভাই মনির হোসেনকে অবৈধ মাদক এবং মালামাল পাচারের জন্য পাঠিয়েছে বা সে আমর ভাই কে হত্যা করে লাশ লুকিয়ে রেখেছে। তাই বাদী গ্রাম এর সাহেব সর্দার ডা.আব্দুল কুদ্দুছ, জহিরুল হক মাষ্টার,নসু মিয়া মেম্বারদের জানালে তারা পরামর্শ দেন আইনের আশ্রয় নিতে।

এ দিকে এবিষয়ে অভিযুক্ত কালামের পিতা বাবুল মিয়া ও তার ভাই রানা কে জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন আমরা এইটুকু জানি কালাম তার মাদকের মালা মাল পাচার করার জন্য সে কোথাও পাঠিয়েছে। তিনি আরও বলেন এই কথা কালাম কে জিজ্ঞেস করার পর কিছু জানে বলে জানায় এবং মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে সে বাড়ী থেকে তার স্ত্রী সন্তান নিয়ে কোথাও পালিয়ে যায়।

থানায় জিডি করার দুই মাসে তার ভাই উদ্ধার না হওয়ায় সোমবার কুমিল্লা আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: